কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা

জ্বালানি খরচ ছাড়াই উৎপন্ন হবে বিদ্যুৎ, যুগান্তকারী উদ্ভাবন কাঠমিস্ত্রী রতনের



 সিম্মী আহাম্মেদ, সম্পাদক, কিশোরগঞ্জনিউজ.কম | ১৪ জুন ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৯:৫০ | তথ্য প্রযুক্তি 


এবার কোন ধরনের জ্বালানি খরচ ছাড়াই উৎপন্ন হবে বিদ্যুৎ। এর মাধ্যমে জ্বালানি তেল বা প্রচলিত বিদ্যুৎ সংযোগ ছাড়াই চালানো যাবে সেচমেশিন। প্রচলিত বিদ্যুৎ ছাড়াই চলবে ভারি কলকারখানা। বাসা-বাড়ি, প্রতিষ্ঠানের ব্যবহৃত বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতিও চলবে বিদ্যুৎ সংযোগ ছাড়াই। এমনই এক যুগান্তকারী উদ্ভাবন করেছেন রতন সূত্রধর নামে এক কাঠমিস্ত্রী। তিনি তার উদ্ভাবিত যন্ত্রের নাম দিয়েছেন ‘ওজনশক্তি মেশিন’।

রতন সূত্রধরের বাড়ি কুলিয়ারচর উপজেলার উসমানপুর ইউনিয়নের রায়েরচর গ্রামে। পারিবারিক নানা বিপর্যয়ের কারণে বর্তমান বসতি কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের শোলাকিয়া কানিকাটা এলাকায়। একটি জীর্ণ কুটিরে মাসিক ৬শ’ টাকা ভাড়ায় বৃদ্ধা মা, স্ত্রী আর একমাত্র শিশুসন্তানকে নিয়ে তার ছোট্ট সংসার।

সেই জীর্ণ কুটিরেরই একটি ছোট্ট কক্ষে তিনি পুঁতেছেন তার স্বপ্নের বীজ। দীর্ঘ ১৭ বছরের পরিশ্রম, সাধনা আর অর্থ ব্যয়ের পর অবশেষে আশার আলো দেখছেন তিনি। ঘুরছে তার উদ্ভাবিত যন্ত্রের চাকা। যেই ঘূর্ণনে লুকিয়ে আছে অফুরন্ত শক্তির আধার। এই শক্তির মাধ্যমেই উৎপন্ন হবে বিদ্যুৎ। আর এই বিদ্যুৎ হবে প্রচলিত বিদ্যুতের বিকল্প। যা ব্যবহার করা যাবে বাণিজ্যিক ও আবাসিক খাতে। কিন্তু এই বিদ্যুৎ উৎপাদনে লাগবে না কোন জ্বালানি। রতন সূত্রধর তার উদ্ভাবিত এই ‘ওজনশক্তি মেশিন’ নিয়ে তাই ভীষণ আশাবাদী।

রতন সূত্রধর জানান, প্রায় ২০ বছর আগে নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলার বারৈচা বাসস্ট্যান্ডে একটি ফার্নিচারের দোকান খুলেছিলেন তিনি। সেই ফার্নিচারের দোকানের বিভিন্ন কাঠ কাটতে তাকে বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করতে হতো। কিন্তু পল্লী বিদ্যুতের সীমাহীন লোডশেডিংয়ের কারণে সেই কাজে বিঘœ ঘটতো। বিদ্যুতের এই লোডশেডিং থেকে বাঁচতে তিনি বিকল্প বিদ্যুৎ নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করেন।

সেই চিন্তাই তাকে এই ‘ওজনশক্তি মেশিন’ উদ্ভাবনে আগ্রহী করে তুলে। এরপর থেকে শুরু হয় নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা। বছরের পর বছর ধরে তিনি সেই উদ্ভাবনের জন্য অর্থ, শ্রম আর সাধনা চালিয়ে যেতে থাকেন। কিন্তু সংসারের খরচ মেটাতে যেখানে তাকে প্রতিনিয়ত গলদঘর্ম হতে হয়, সেখানে উদ্ভাবনের স্বপ্নপূরণ হয়ে দাঁড়ায় বিলাসিতা। ‘ওজনশক্তি মেশিন’ উদ্ভাবনের খরচ মেটাতে তাই তাকে ঘুরতে হয় মানুষের দ্বারে দ্বারে। কিন্তু কারো কাছ থেকেই মিলেনা প্রয়োজনীয় কোন আর্থিক সহযোগিতা।

প্রকট এই দারিদ্রের মাঝেও তিনি হতোদ্যম হয়ে যাননি। স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দেয়ার জন্য ক্রমাগত প্রচেষ্টা চালিয়ে গেছেন। দীর্ঘ প্রায় ১৭ বছর এভাবে কাঠখড় পুড়িয়ে অবশেষে রতন সূত্রধর পৌঁছেছেন তার স্বপ্নপূরণের দ্বারপ্রান্তে। চাকা ঘুরছে তার বহু সাধনার ‘ওজনশক্তি মেশিন’ এর।

‘ওজনশক্তি মেশিন’ এর কাঠামো সম্পর্কে বলতে গিয়ে রতন সূত্রধর জানান, তার উদ্ভাবিত এই মেশিনে ওজন শক্তিকে কৌশলে ব্যবহার করা হয়েছে। ওজন শক্তি সক্রিয়ভাবে নিজস্ব গতিতে চলতে সক্ষম। মেশিনটিতে ওজন বাড়ানোর মাধ্যমে শক্তিও বাড়ানো যায়। এর মাধ্যমে উৎপাদিত বিদ্যুৎ বাণিজ্যিক ও আবাসিক খাতের সবক্ষেত্রে সফলভাবে ব্যবহার করা সম্ভব।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]


এ বিভাগের আরও খবর











সেগুনবাগিচা, গৌরাঙ্গবাজার, কিশোরগঞ্জ-২৩০০
মোবাইল:০ ১৮১৯ ৮৯১০৮৮, ০১৮৪১ ৮১৫৫০০
kishoreganjnews247@gmail.com
Web: www. kishoreganjnews.com
প্রধান সম্পাদক: আশরাফুল ইসলাম
সম্পাদক: সিম্মী আহাম্মেদ