কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা

শত শহীদের রক্তে ভেজা ভয়রার বটমূল


 বিশেষ প্রতিনিধি | ২৭ আগস্ট ২০১৮, সোমবার, ৬:০০ | ইতিহাস-ঐতিহ্য 


ফাইল ছবি।

গ্রামের নাম ভয়রা। হাওর উপজেলা ইটনার জয়সিদ্ধি ইউনিয়নের একটি প্রত্যন্ত গ্রাম। থানা সদরের তিন কিলোমিটার দক্ষিণের এই গ্রামটির প্রাচীন বটমূল একাত্তরে পরিণত হয়েছিল এক জঘন্য মৃত্যুকূপে।

শত শহীদের রক্তে ভেজা হাওর অঞ্চলের বৃহত্তম এই বধ্যভূমিতে আজো ওঠেনি কোন স্মৃতিফলক। বর্বরতম গণহত্যার নিরব সাক্ষী হিসেবে একটি প্রাচীন বটগাছ শত প্রতিকূলতার মাঝে এখনো ঠাঁয় দাঁড়িয়ে রয়েছে। যার শেকড়ে শেকড়ে ছড়িয়ে রয়েছে অব্যক্ত শোকগাঁথা।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, ১৯৭১ সালের ১৯ এপ্রিল পাক হানাদার বাহিনী কিশোরগঞ্জে আসে। এর দীর্ঘ চার মাস পর ২৬ আগস্ট (৯ ভাদ্র) পাকবাহিনীর প্রথম দলটি কিশোরগঞ্জের ইটনায় গিয়ে ক্যাম্প স্থাপন করে। অক্টোবরের প্রথম দিকে ইটনা ছেড়ে যাওয়ার আগে মাস দেড়েকের ব্যবধানে তারা ইটনা ও মিঠামইনের বিভিন্ন স্থানে গণহত্যার নজির রেখে যায়।

বর্ষার ওই সময়টাতে স্থানীয় দোসরদের সহযোগিতায় গানবোট ও স্পিডবোট নিয়ে পাকবাহিনী বিভিন্ন গ্রামে অপারেশন চালায়। সেসব অপারেশনের মাধ্যমে ধরে আনা শত শত নিরপরাধ মানুষকে নারকীয় কায়দায় হত্যা করে মাটিচাপা দেয়া হতো ভয়রা গ্রামের বটমূলে। এরমধ্যে ২৮ আগস্ট একদিনেই নৌকা যোগে নিরাপদ গন্তব্যে যাওয়ার পথে পার্শ্ববর্তী ছত্রিশ ও ঢালারগাঁও গ্রামের শতাধিক নিরপরাধ মানুষকে ধরে এনে ভয়রা বটমূলে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। এ সময় সেখানে অনেককে জ্যান্ত মাটিচাপাও দেওয়া হয়।

একের পর এক গণহত্যায় হাজারো নরকঙ্কালের স্তুপ জমেছিল ভয়রার বটমূলে। ইতিহাসের এই বর্বরতম গণহত্যার নিরব সাক্ষী হিসেবে প্রাচীন বটগাছটি এখনো ঠাঁয় দাঁড়িয়ে রয়েছে। কিন্তু স্বাধীনতার ৪৭ বছরেও সংরক্ষণ করা হয়নি ভয়রার সে বধ্যভূমিটি।

হানাদারদের বর্বরতম হত্যাযজ্ঞের নিরব সাক্ষী হয়ে থাকা স্থানটি পড়ে রয়েছে চরম অযত্ন আর অবহেলায়। ত্যাগের মহিমায় সমুজ্জ্বল সেসব মর্মান্তিক আত্মত্যাগের স্মৃতি আজ ধূসর। এমনকি বধ্যভূমির জায়গা দখল করে নির্মাণ হচ্ছে একের পর এক স্থাপনা। এরপরও নেই কোন সরকারি উদ্যোগ ও তৎপরতা।

দেশের স্বাধীনতার যূপকাষ্ঠে যেসব মানুষকে নির্মমভাবে নিজের জীবন দিতে হয়েছে, সেসব মানুষের রক্তে রাঙা ভয়রা বধ্যভূমি সংরক্ষণের দাবি পূরণ না হওয়ায় স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যরা হতাশা প্রকাশ করেছেন।



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর












সেগুনবাগিচা, গৌরাঙ্গবাজার, কিশোরগঞ্জ-২৩০০
মোবাইল:০ ১৮১৯ ৮৯১০৮৮, ০১৮৪১ ৮১৫৫০০
kishoreganjnews247@gmails.com
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি: সাইফুল হক মোল্লা দুলু
প্রধান সম্পাদক: আশরাফুল ইসলাম
সম্পাদক: সিম্মী আহাম্মেদ