kishoreganjnews.com:কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা

পাকুন্দিয়ার আদর্শ বিদ্যাপীঠ ‘শৈলজানী আলিম মাদরাসা’



 মো. স্বপন হোসেন | ২৭ আগস্ট ২০১৮, সোমবার, ৭:০৪ | শিক্ষা  


মানুষ গড়ার আঙিনায় সু-শিক্ষার বিকল্প নাই। শিক্ষার আলোয় আলোকিত দেশ, জাতি তথা বিশ্ব মানবতার মুক্তির মশাল নিয়ে সবুজ শ্যামল ছায়ায় ঘেরা প্রকৃতির মনোরম পরিবেশে সাতাইরিয়া বিলের তীরে গড়ে উঠা যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি আদর্শ মানুষ গড়ার লক্ষে যুগ যুগ ধরে অনবরত আলো ছড়িয়ে আসছে, সেটি হল ‘শৈলজানী আলিম মাদরাসা’।

শিক্ষাবান্ধব পরিবেশে জ্ঞান অর্জনের সামগ্রিক আয়োজনে সমৃদ্ধ এ মাদরাসাটিতে শিক্ষার্থীরা সত্যিকার অর্থেই এক একজন ভালো মানুষ হওয়ার শিক্ষা-দীক্ষা লাভ করে। মাদরাসাটি পাকুন্দিয়া উপজেলার ৯নং চন্ডিপাশা ইউনিয়নের শৈলজানী গ্রামের মধ্যে দিয়ে বহমান সাতাইরিয়া বিলের দক্ষিণ-পশ্চিম পাশে প্রতিষ্ঠিত একটি অতুলনীয় বিদ্যাপীঠ।

শিক্ষার আদর্শে অনুপ্রাণিত ও উদ্দীপ্ত হয়ে ১৯৮১ সালে মৌলভী ক্বারী আব্দুল করিমের পরিচালনায় পর্যাপ্ত জমির উপর প্রতিষ্ঠা লাভ করে এ বিদ্যাপীঠ। উপজেলার একটি অন্যতম মাদরাসা হিসাবে সুপ্রতিষ্ঠিত এই মাদরাসাটি তার সূচনালগ্ন থেকেই সৎ, আদর্শ ও নিষ্ঠাবান মানুষ গড়ার ব্রত নিয়ে প্রতিটি কার্যক্রম চালিয়ে আসছে।

মাদরাসাটির অধ্যক্ষ মাওলানা মো. আসাদুল হক এর অক্লান্ত পরিশ্রম ও বুদ্ধিদীপ্ত নেতৃত্বের গুণে ১৯জন অভিজ্ঞ শিক্ষক-শিক্ষিকার সমন্বয়ে প্রতিবছর মাদরাসাটি এই অঞ্চলের শ্রেষ্ঠ মাদরাসা হিসেবে স্বীকৃতি পেয়ে আসছে। পুরাতন শিক্ষানীতি অনুযায়ী ৩জন এবং বর্তমান শিক্ষানীতি অনুযায়ী ৭জন শিক্ষকের ঘাটতি থাকা সত্ত্বেও মাদরাসাটি শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে মুন্সিয়ানা দেখিয়ে আসছে।

১ম শ্রেণি থেকে আলিম শ্রেণি পর্যন্ত মাদরাসাটিতে বর্তমান ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা ৬৫০জন। তিনটি ভবনের ১২টি শ্রেণিকক্ষ, ১টি কম্পিউটার ল্যাব ও ১টি অফিস কক্ষে পরিচালিত হচ্ছে এর শিক্ষা কার্যক্রম। মাদরাসার সামনেই রয়েছে সু-বিশাল খেলার মাঠ।

তবে উত্তর পাশের ভবনটিতে ফাটল ধরায় এবং দক্ষিণ পাশের ভবনটি পুনঃনির্মাণে আর্থিকভাবে অসচ্ছলতার কারণে অতিরিক্ত শ্রেণি কক্ষ না থাকায় ছাত্র-ছাত্রীদের পাঠদানের সমস্যা হচ্ছে। সেই সাথে বিজ্ঞানাগার না থাকায় বিজ্ঞানের সরঞ্জামাদি রাখার ও কম্পিউটার ল্যাবের সমস্যাও হচ্ছে। বেঞ্চ, বৈদ্যুতিক ফ্যানের ঘাটতি রয়েছে। উর্ধতন কর্মকর্তাদের কাছে দ্রুত এ ঘাটতিগুলো পূরণ করার দাবি জানিয়েছে মাদরাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

মাদরাসাটি সবুজ-শ্যামল পরিবেশে প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় ছোট ছোট ছেলে-মেয়েরা এখানেই পড়াশোনা করে। এছাড়া অন্যান্য জায়গার তুলনায় কম বেতন নেওয়া হয় দরিদ্র ও মেধাবী ছেলে-মেয়েদের কাছ থেকে। এখানে পড়াশোনা করার সুযোগ পায় গ্রামের সর্বস্তরের মানুষ। এছাড়া খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ শিক্ষা কারিকুলাম অনুযায়ী সর্বোচ্চ সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হয় এ মাদরাসাটিতে। আর্থিক সহযোগিতার মধ্যে যারা মেধা তালিকায় ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অর্জন করে তাদেরকে কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে পুরস্কৃত করা হয়।

পাকুন্দিয়া উপজেলার অন্যতম এই মাদরাসাটির বিগত সালের ইবতেদায়ি ও জেডিসি এবং চলতি বছরের দাখিল ও আলিম পরীক্ষায় কাঙ্ক্ষিত ফলাফল অর্জন এবং খেলাধুলাসহ একাডেমিক পুরস্কার তো আছেই সাথে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অদ্বিতীয়ভাবে অংশগ্রহণ করে আসছে।

সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, প্রতিষ্ঠানটির এমন অভাবনীয় সাফল্যের পেছনে একটি বড় কারণ হল, ১ম শ্রেণি থেকে ৫ম শ্রেণি পর্যন্ত নিজেদের হাতে গড়ে নিজস্ব শিক্ষার্থী নিম্ন মাধ্যমিকে প্রবেশ করানো। এছাড়া অধ্যক্ষ মাওলানা মো. আসাদুল হকের নিরলস পরিশ্রম এবং তার তত্বাবধানে চৌকস ও আদর্শবান শিক্ষকদের সমন্বয়ে সমৃদ্ধ পরিবেশ এবং এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতায় শিক্ষকদের সাথে যোগাযোগ পরামর্শসহ আর্থিক সহযোগিতা মাদরাসাটির সাফল্যের অন্যতম কারণ। সেই সাথে কঠোর নিয়মকানুন তো আছেই। সবুজ-শ্যামল বিভিন্ন গাছপালায় আচ্ছাদিত পরিবেশে অবস্থিত মাদরাসাটির পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতাও দেখার মতো। মাদরাসা কমিটির সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি এম.এ. মান্নান মানিকের মাধ্যমে সার্বিক কাজগুলো হয়ে থাকে।

চারদিক ছায়া সুনিবিড় নির্জন গ্রাম্য পরিবেশে অবস্থিত প্রতিষ্ঠানটির অঙ্গণে কোলাহল ও শব্দ দূষণমুক্ত পরিবেশ শিক্ষার্থীদের মেধা ও মনন গঠনে ভূমিকা রাখছে।

মাদরাসাটির ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে অধ্যক্ষ মাওলানা মো. আসাদুল হকের ভাষ্য, যদি ম্যানেজমেন্ট তথা মালিক পক্ষ রাজি থাকেন তবে মাদরাসাটি আগামীতে ফাযিল বা কামিলে উন্নতি করা হবে। আর যদি তা না হয়, তবে বর্তমানে যে পরিমাণ শিক্ষার্থী আছে, তাদেরকে নিয়ে ১০০% পাস এবং বর্তমানের তুলনায় এ+ বৃদ্ধিসহ উপজেলার সেরা মাদরাসায় রূপান্তরিত করার আশা করছি। সৎ দক্ষ ও আদর্শ মানুষ তৈরির লক্ষে আমাদের পথ চলা প্রধানমন্ত্রী তথা শিক্ষাবিদ, মনিষী ও জ্ঞানতাপস মানুষের আকাঙ্ক্ষা পূরণে ডিজিটাল সোনার বাংলা গড়তে সোনার মানুষের দিশারী হতে আমরা অঙ্গীকারাবদ্ধ।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]


এ বিভাগের আরও খবর



















সেগুনবাগিচা, গৌরাঙ্গবাজার, কিশোরগঞ্জ-২৩০০
মোবাইল:০ ১৮১৯ ৮৯১০৮৮, ০১৮৪১ ৮১৫৫০০
kishoreganjnews247@gmail.com
Web: www. kishoreganjnews.com
প্রধান সম্পাদক: আশরাফুল ইসলাম
সম্পাদক: সিম্মী আহাম্মেদ