কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা

কিশোরগঞ্জে পানের হাট, যাচ্ছে দেশ-বিদেশে


 মোস্তফা কামাল | ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, সোমবার, ১২:১৩ | অর্থ-বাণিজ্য 


কিশোরগঞ্জের বিভিন্ন উপজেলায় পানের আবাদ হচ্ছে। কারো একটি ভাল পানের বরজ থাকেল তার আর অন্য কোন আয়ের উৎসের দরকার পড়ে না। সারাদিন বরজের পরিচর্যা করে পান সংগ্রহ করে বাজারে বিক্রি করে বেশ ভালই আয় করতে পারেন। আর এই পান কেবল স্থানীয় বাাজরেই বিক্রি হয় না, দেশের বিভিন্ন জেলায়, এমনকি বিদেশেও যাচ্ছে।

পাকুন্দিয়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় জেলার সর্বাধিক পানের বরজ রয়েছে। এছাড়া কটিয়াদী এবং হোসেনপুরেও পানের বরজ রয়েছে। এসব বরজ থেকে পান সংগ্রহ করে পান চাষীরা জেলা শহরের পুরানথানা হাটে এবং কটিয়াদী হাটে নিয়ে বিক্রি করেন। এমনকি পার্শ্ববর্তী ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বরজ থেকেও কিশোরগঞ্জ শহরের পুরানথানা এলাকার বিশাল পান বাজারে এনে পান বিক্রি করা হয়।

কয়েকজন ব্যবসায়ী জাানলেন, শহরের পুরানথানা হাটে সপ্তাহে রোববার ও বৃহস্পতিবার খুব সকালে পানের হাট বসে। প্রতি হাটে লেনদেন হয় অন্তত ২০ লাখ টাকার।

নান্দাইলের জাহাঙ্গীরপুরের বরজ মালিক মো. সোলায়মানও তার বরজ থেকে নিয়মিত পুরানথানা বাজারে পান নিয়ে আসেন। তিনি জানান, তার তিন কাঠা জমিতে পানের বরজ করা হয়েছে। এর থেকে তিনি বছরে ১০ লাখ টাকার পান বিক্রি করতে পারেন। পানের বরজে লাভ বেশি বলে তিনি এখন আর অন্য ফসল চাষাবাদ ছেড়ে দিয়েছেন। কেবল পানের বরজের যত্ন আর পরিচর্যা নিয়েই পড়ে থাকেন।

তিনি জানান, পানের বরজে ক্ষয়ক্ষতির মাত্রা খুবই কম। শিলাবৃষ্টি আর ছত্রাক জাতীয় রোগের প্রাদুর্ভাব না হলে পানের কোন ক্ষয়ক্ষতি হয় না। তবে বিভিন্ন কীটনাশক কোম্পানির ওষুধ রয়েছে। রোগবালাই হলে সেগুলি প্রয়োগ করলেই সেরে যায়।

খুচরা ব্যবসায়ীরা জানালেন, তারা বর্তমানে বিভিন্ন আকার ও মানভেদে ৬০ টাকা থেকে ১৮০ টাকা বিড়া দরে পান বিক্রি করছেন।



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর



















সেগুনবাগিচা, গৌরাঙ্গবাজার, কিশোরগঞ্জ-২৩০০
মোবাইল:০ ১৮১৯ ৮৯১০৮৮, ০১৮৪১ ৮১৫৫০০
kishoreganjnews247@gmails.com
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি: সাইফুল হক মোল্লা দুলু
প্রধান সম্পাদক: আশরাফুল ইসলাম
সম্পাদক: সিম্মী আহাম্মেদ