কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


বাজিতপুরে স্বামী খুনের ঘটনায় দ্বিতীয় স্ত্রী গ্রেপ্তার


 স্টাফ রিপোর্টার | ২৭ জানুয়ারি ২০১৮, শনিবার, ২:০৫ | বাজিতপুর 


বাজিতপুরে জিয়া উল্লাহ জিয়া (৪২) নামে এক ব্যক্তির খুনের ঘটনায় কথিত দ্বিতীয় স্ত্রী জাহেরা বেগম (৩২) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে পার্শ্ববর্তী নিকলী উপজেলার গুরুই নতুন বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বাজিতপুর থানার মো. সাইফুর রহমান মজুমদার পিপিএম এই গ্রেপ্তার অভিযানের নেতৃত্ব দেন। তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে সিএনজি অটোরিকশা চালকের ছদ্মবেশে তিনি অভিযুক্ত স্বামী হন্তারক জাহেরা বেগমকে গ্রেপ্তার করেন।

গ্রেপ্তার হওয়া জাহেরা বেগম বাজিতপুর উপজেলার দিলালপুর ইউনিয়নের জালুয়াপাড়া গ্রামের আহাম্মদ আলীর মেয়ে। অন্যদিকে নিহত জিয়া উল্লাহ জিয়া একই ইউনিয়নের খাটেরা গ্রামের মতিউর রহমানের ছেলে।

পুলিশ ও পরিবার জানায়, খাটেরা গ্রামের জিয়া উল্লাহ জিয়া একটি মাজারের ওরস থেকে কথিত দ্বিতীয় স্ত্রী জালুয়াপাড়া গ্রামের জাহেরাকে নিয়ে গত ২৩শে জানুয়ারি রাতে পার্শ্ববর্তী বাহেরনগর গ্রামের ফুফাত বোন দেলোয়ারার বাড়িতে যান। দেলোয়ারার স্বামী বাড়িতে না থাকায় জাহেরাসহ জিয়াকে দেলোয়ারার ঘরে থাকতে দিয়ে তিনি অন্য ঘরে গিয়ে ঘুমান। কিন্তু রাতের কোন এক সময় জিয়াকে শ্বাসরোধে হত্যা করে জাহেরা পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই হারুন মিয়া (৪৪) বাদী হয়ে জাহেরা বেগমকে আসামি করে বাজিতপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ দেয়া হয় বাজিতপুর থানার এসআই আমিনুল ইসলামকে।

নিহত জিয়ার চার সন্তানসহ প্রথম স্ত্রী আছেন। অন্যদিকে কথিত দ্বিতীয় স্ত্রী জাহেরারও আগের সংসারে চারটি সন্তান রয়েছে।

বাজিতপুর থানার মো. সাইফুর রহমান মজুমদার পিপিএম জানান, বৃহস্পতিবার এই ঘটনায় মামলা দায়েরের পর পরই অভিযুক্ত জাহেরাকে গ্রেপ্তারের জন্য তারা তৎপরতা শুরু করেন। তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারসহ নানা কৌশলে একদিন পরই শুক্রবার রাত ১০টার দিকে তাকে গুরুই নতুন বাজার এলাকা থেকে তারা গ্রেপ্তার করতে সমর্থ হন।

জাহেরা বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭দিনের রিমান্ড চেয়ে শনিবার কিশোরগঞ্জের আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও ওসি সাইফুর রহমান জানান।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর