kishoreganjnews.com:কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা

ইউএনও মাসউদকে কিশোরগঞ্জে রাখতে সোশ্যাল মিডিয়ায় আকুতি



 বিশেষ প্রতিনিধি | ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, শনিবার, ৯:০৯ | বিশেষ সংবাদ 


সম্প্রতি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এডিসি) পদে পদোন্নতি পেয়েছেন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ। তাঁকে মাদারীপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদায়ন করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয়ের এই সিদ্ধান্তে নাখোশ কিশোরগঞ্জের সচেতন মহল। ঝড় ওঠেছে সোশ্যাল মিডিয়াতেও। জনবান্ধব এই কর্মকর্তাকে কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসনে পদায়নের আকুতি জানিয়েছেন তারা। এজন্যে ফেসবুকে পুল পর্যন্ত খোলা হয়েছে। এমনকি মানববন্ধন কর্মসূচি আয়োজনের কথাও বলা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জের নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ ফেসবুকসহ নানা সামাজিক মাধ্যমে নিজেদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। সেসব প্রতিক্রিয়ায় কিশোরগঞ্জবাসী ইউএনও মাসউদ এর কর্মতৎরতা উল্লেখসহ তাকে কিশোরগঞ্জে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এডিসি) হিসেবে পদায়নের আকুতি ও দাবি জানিয়েছেন।

ফৌজিয়া জলিল ফেসবুকে মন্তব্য করেছেন, জনাব ইউএনও মহোদয় আপনার পদোন্নতিতে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। কিন্তু আপনাকে আমরা এডিসি (শিক্ষা) কিশোরগঞ্জে দেখতে চাই।

মো. নিজাম উদ্দিন লিখেছেন, কিশোরগঞ্জ ডিসি মহোদয়ের কার্যালয়ে এডিসি হিসাবে থাকলে ভাল হতো। ভিআইপি জেলা হিসেবে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উদোগ নিলে বিষয়টি সহজতর হতো।

আলী রেজা সুমন লিখেছেন, আমি চাই কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার উদ্ভাবনী কাজের রূপকার ও পরিস্কর পরিচ্ছন্নতার হাতিয়ার, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব আব্দুল্লাহ আল মাসউদ স্যার এডিসি হিসেবে কিশোরগঞ্জেই থাকুন।

মো. ইসমাইল হোসেন লিখেছেন, স্যারকে কিশোরগঞ্জ জেলার এডিসি হিসেবে দেখতে চাই।

মোহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম লিখেছেন, অভিনন্দন মাসউদ সাবকে পদোন্নতি পাওয়ায়। দুর্ভাগ্য কিশোরগঞ্জবাসীর এমন একজন করিrকর্মা কর্মপাগল সেবকের সেবা থেকে সদর উপজেলাবাসী বঞ্চিত হবে। তাঁকে এডিসি হিসেবে কিশোরগঞ্জে রাখার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করছি। তাঁর মাধ্যমে গোটা জেলা উপকৃত হবে। সতত শুভ কামনা।

মো. ফারুকুজ্জামান লিখেছেন, আমি চাই স্যার কিশোরগঞ্জে আরো দুই বছর থাকুক।

আবুল ভূঁইয়া লিখেছেন, স্যারকে অভিন্দন ও শুভেচ্ছা। আপনাকে কিশোরগঞ্জের এডিসি হিসাবে পাব এমন প্রত্যাশা সুধী জনের। আপনার সুন্দর আগামী কামনা করছি।

এম এম মাসুদ লিখেছেন, অবশ্যই স্যার কিশোরগঞ্জে থাকুক। ওনাকে যদি বদলি করা হয়, এভারগ্রীন কিশোরগঞ্জ এর ব্যানারে মানববন্ধন করতে প্রস্তুত আছি।

এমদাদুল হক লিখেছেন, আমি মাননীয় উপর মহলের নিকট বিনীত অনুরোধ করছি, মাসউদ স্যার কে আমাদের কিশোরগঞ্জ এ আরও দু বছরের জন্য পোস্টিং দেওয়ার জন্য।

এমএস আলমামুন লিখেছেন, একজন অনন্য মানুষ আব্দুল্লাহ আল মাসউদ প্রিয় স্যার। সেই আদর্শবান মানুষটিকে.. অভিনন্দন ও শুভকামনা। আব্দুল্লাহ আল মাসউদ স্যারের পোস্টিংটা কিশোরগঞ্জে হলে ভাল লাগতো।

জাহাঙ্গীর আলম জাহান লিখেছেন, স্যারকে পুরো কিশোরগঞ্জ চায়।

আসলামুল হক আসলাম লিখেছেন, আব্দুলাহ আল মাসউদ স্যার আপনার কর্মকে অনেক ভালবাসি ও শ্রদ্ধা করি। উন্নয়ন সহায়ক, স্বচ্ছ, গতিশীল, জনবান্ধব এবং দক্ষ, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুলাহ আল মাসউদ স্যার। এমন একজন দক্ষ ও চৌকস কর্মকর্তা কিশোরগঞ্জবাসীর খুব প্রয়োজন, আপনি আসার পর শিল্প, সাংস্কৃতিক চর্চার চারণ ক্ষেত্র, 'শিল্পকলা’ আমাদের জন্য অবারিত হয়েছে। যে কোন মানুষ যে কোন সময় আপনার কাছে যেতে পারে। আপনাকে পাওয়া যায় বৃক্ষ রোপণে, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানে, অসহায় দরিদ্র মানুষের পাশে, এমন কি রাত বিরাতে বাইসাইকেলে বিভিন্ন ইউনিয়নে দেখা যায়, স্যার আপনার মত উচ্ছল তারুণ্যের দিপ্তীতে ভরপুর কর্মচঞ্চল কর্মঠ মানুষ কিশোরগঞ্জবাসীর প্রয়োজন, যদি কোন নুন্যতম উপায় থাকে আমাদের স্বার্থের জন্য আরো কিছুদিন থেকে যান স্যার। আপনার কর্মকে অনেক ভালবাসি স্যার শ্রদ্ধা করি, যদিও এই গোপন কথাটা কোনদিন বলা হয়নি।

সজল রহমান তার মন্তব্যে বলেছেন, এমন জনপ্রশাসন বান্ধব মানুষ আর আসবে না এই শহরে... স্যারকে আমরা কিশোরগঞ্জেই চাই এডিসি হিসেবে।

জাহাঙ্গীর আলম লিখেছেন, আমাদের শহরটাকে আরও ক্লীন রাখার জন্য, মুক্ত মঞ্চের ওয়াকওয়েকে বাইক এবং বখাটে মুক্ত, সাংস্কৃতিক অঙ্গণের ও জেলা শিল্পকলা একাডেমি'র উন্নয়নের জন্য মাউদ স্যারকে আরও দুই বছর থাকার দাবি জানাই।

আকিব হৃদয় লিখেছেন, এডিসি হিসেবে পদোন্নতি পাওয়ায় অভিনন্দন জানাই কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পরিশ্রমী এবং সাদা মনের মানুষ আব্দুল্লাহ আল মাসউদ স্যারকে। আমাদের কিশোরগঞ্জবাসীর প্রাণের দাবি স্যার যেন এডিসি হিসেবে এই কিশোরগঞ্জ জেলাতেই থাকেন।

মোহাম্মদ মহিতুর রহমান লিখেছেন, কিশোরগঞ্জে এডিসি (শিক্ষা ও আইসিটি) পদটি দীর্ঘদিন ধরে খালি রয়েছে। এ পদে পোস্টি দিলে তিনি কিশোরগঞ্জে থেকে জনসেবা করে যেতে পারবেন।

প্রসঙ্গত, মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ ২০১৬ সালের আগস্টে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকেই ইউএনও মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ বিভিন্ন উদ্ভাবনী সেবা চালুর মাধ্যমে সহজে ও স্বল্প সময়ে জনগণের বিভিন্ন সেবা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে ভূমিকা রেখে আসছিলেন।

এছাড়া ইউএনও মাসউদ মানসম্মত শিক্ষা বাস্তবায়ন, জনগণের স্বাস্থ্য সেবা প্রাপ্তি নিশ্চিতকরণ, বাল্য বিবাহ রোধ, মাদক নিয়ন্ত্রণ, ভেজালবিরোধী অভিযান পরিচালনা, প্রকল্প বাস্তবায়নে স্বচ্ছতা, দুর্নীতিমুক্ত অফিস প্রতিষ্ঠা, সরকারি জমি ও খাল থেকে অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ, অবৈধভাবে খাস জমি দখল বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ, পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা, ভোক্তা অধিকার নিশ্চিতকরণসহ বিভিন্ন ইতিবাচক কর্মকাণ্ডে কঠোর ও উদ্যোগী ভুমিকা রেখে আসছিলেন।

তিনি অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে হোসেনপুর উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) কর্মকর্তা হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছিলেন।

কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ তাঁর কর্মএলাকায় নানা ইতিবাচক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের মন জয় করে নিয়েছেন।

২৭তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে প্রশাসনিক ক্যাডারে নিয়োগ পাওয়া মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ এর নিজ জেলা ব্রাহ্মণবাড়িয়া।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]


এ বিভাগের আরও খবর



















সেগুনবাগিচা, গৌরাঙ্গবাজার, কিশোরগঞ্জ-২৩০০
মোবাইল:০ ১৮১৯ ৮৯১০৮৮, ০১৮৪১ ৮১৫৫০০
kishoreganjnews247@gmail.com
Web: www. kishoreganjnews.com
প্রধান সম্পাদক: আশরাফুল ইসলাম
সম্পাদক: সিম্মী আহাম্মেদ