কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিয়ে বাংলাদেশ ফাইনালে


 স্টাফ রিপোর্টার | ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১:৪১ | জাতীয় 


পাকিস্তানের রান তখন ৬ উইকেটে ১৬৭। ৪১তম ওভারের পঞ্চম বলটি করলেন মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ। ৮৩ রানে ব্যাটিংয়ে থাকা ইমামুল হক উইকেট থেকে বেরিয়ে এসে বলটি উড়িয়ে মারতে গিয়ে ব্যর্থ হন। ইমামুল হক উইকেটে ফেরার আগেই বদলি উইকেটরক্ষক লিটন দাস স্ট্যাম্প ভেঙ্গে দেন।

দারুণ প্রতিরোধ গড়া ইমামুল হকের এই আউটের পরই মূলত ম্যাচ থেকে ছিটেকে যায় পাকিস্তান। বাংলাদেশের ২৪০ রানের টার্গেটে পাকিস্তান থামে ২০২ রানে। ফলে ৩৭ রানের জয় নিয়ে এশিয়া কাপের ফাইনালে জায়গা করে নেয় বাংলাদেশ।

পাকিস্তানের ইনিংসের শুরুতে প্রথম ওভারেই ওপেনার ফখর জামানকে রুবেল হোসেনের ক্যাচে পরিণত করেন বোলার মেহেদি হাসান মিরাজ। মাত্র ২ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর দ্বিতীয় ওভারে মোস্তাফিজুর রহমান নিজের দ্বিতীয় বলেই ফেরান বাবর আজমকে। পাকিস্তানি এই ব্যাটসম্যানকে  লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে তাকে প্যাভেলিয়নের পথ দেখান পেসার মোস্তাফিজুর রহমান।

ইনিংসের চতুর্থ ওভারে মোস্তাফিজুর রহমান তার দ্বিতীয় ওভারে পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদকে মুশফিকের ক্যাচে পরিণত করেন। ফলে ১৮ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকে পাকিস্তান।

সেখান থেকে দলকে ম্যাচে ফেরানোর চেষ্টা করেন পাকিস্তানের আরেক ওপেনার ইমামুল হক। শোয়েব মালিককে সঙ্গী করে লম্বা জুটির দিকে হাঁটতে থাকে পাকিস্তান। বাংলাদেশের চিন্তার কারণ হয়ে ওঠা শোয়েব মালিককে আউট করে স্বস্তি ফেরান রুবেল হোসেন। শোয়েব মালিক রুবেলের বলটিকে চিপ করে মিড উইকেটে পাঠাতে গিয়ে মাশরাফি বলটি মুঠোবন্দী করে ৩০ রানে থামান শোয়েব মালিককে। ২৬তম ওভারে শাদাব খানকে ফেরান সৌম্য সরকার।

এরপরই ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে ইমাম-আসিফ জুটি। মেহেদি হাসান মিরাজের শিকার হয়ে আসিফ সাজঘরে ফেরার পর মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ ফেরান ইমামকে।

শেষ ওভারে পাকিস্তানের জয়ের জন্য টার্গেট দাঁড়ায় ৩৮ রান।

বাংলাদেশের পক্ষে মোস্তাফিজুর রহমান নেন সর্বোচ্চ ৪ উইকেট।

এর আগে আবুধাবি স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাটিং করতে নেমে মুশফিকের লড়াকু ৯৯ রানের ওপর ভর করে ২৩৯ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর