কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


‘ম্যাজিস্ট্রেট আবু তাহের সাঈদ ছিলেন সততা নিষ্ঠার প্রতীক’


 বিশেষ প্রতিনিধি | ১১ নভেম্বর ২০১৮, রবিবার, ৬:৩৭ | বিশেষ সংবাদ 


গত শুক্রবার (৯ নভেম্বর) কিশোরগঞ্জের সিনিয়র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু তাহের মো. সাঈদ (৫৬) মারা গেছেন। রোববার (১১ নভেম্বর) জেলা কালেক্টরেট সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত জেলা আইন শৃংখলা কমিটির মাসিক সভায় এক মিনিট দাঁড়িয়ে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়।

সভার সভাপতি জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী বলেছেন, ম্যাজিস্ট্রেট আবু তাহের সাঈদ ছিলেন সততা আর নিষ্ঠার মূর্ত প্রতীক। অনেক বড় বড় অভিযান তিনি অত্যন্ত দৃঢ়তা এবং নিষ্ঠার সঙ্গে পরিচালনা করেছেন। তাঁর মৃত্যুতে প্রশাসন একজন নিষ্ঠাবান কর্মকর্তাকে হারালো।

জেলা প্রশাসক সবার কাছে আবু তাহের সাঈদের জন্য দোয়া ও আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

সভায় আবু তাহের সাঈদ, পুলিশ সুপারের সদ্যপ্রয়াত মা মফিলা রহমান এবং এপিপি মাহতাব উদ্দিনের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়।

সভায় আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কেউ যেন নাশকতা বা বিশৃংখলা না ঘটাতে পারে, সে ব্যাপারে আইন শৃংখলা বহিনীর পাশাপাশি জনগণেরও সহযোগিতা কামনা করা হয়। শহরে যানজট নিরসনে সুপারিশ প্রণয়ন কমিটির প্রতিবেদন নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা হয় এবং এ ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়।

মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত রাখার বিষয়েও আলোচনা হয়। সেই সঙ্গে জেলার সার্বিক আইন শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের ওপরও গুরুত্বারোপ করা হয়।

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা. মো. হাবিবুর রহমান, অধ্যাপক প্রাণেশ কুমার চৌধুরী, জেল সুপার মো. বজলুর রশিদ, কটিয়াদী উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহাব আইনউদ্দিন, অষ্টগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম জেমস, তাড়াইল উপজেলা চেয়ারম্যান আজিজুল হক ভূঞা মোতাহার প্রমুখ।



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর