কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


মিঠামইনে হামলায় আহত পিতা-পুত্রের মধ্যে পিতার মৃত্যু


 স্টাফ রিপোর্টার | ১ ডিসেম্বর ২০১৮, শনিবার, ৭:৫৮ | মিঠামইন 


মিঠামইনে তুচ্ছ ঘটনায় প্রতিপক্ষের হামলায় পিতা ও পুত্র আহত হওয়ার দুই দিন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় পিতার মৃত্যু হয়েছে। নিহতের নাম সুরুজ মিয়া (৬৮)। শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এর আগে বুধবার (২৮ নভেম্বর) বিকালে প্রতিপক্ষের লোকজনের হামলায় সুরুজ মিয়া ও তার ছেলে শেখ বজলুর রহমান (৩৫) গুরুতর আহত হন। দু’জনকেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওইদিন রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

নিহত সুরুজ মিয়া মিঠামইন উপজেলার গোপদিঘী ইউনিয়নের সরালিয়াহাটি গ্রামের মৃত নূর মোহাম্মদের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সরালিয়াহাটি গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে শেখ বজলুর রহমান গোপদিঘী বাজারে টিনের ব্যবসা করেন। একই এলাকার মো. আবদুল হাই এর সাথে তাঁর এলাকায় আধিপত্যসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

বুধবার (২৮ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার মো. আবদুল হাই মোটর সাইকেলে করে বাজারে যাতায়াতের সময় হর্ন বাজালে ব্যবসায়ী বজলুর রহমানের সাথে তার কথা কাটাকাটির ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে বিকালে আবদুল হাই এর লোকজন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বজলুর রহমানে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়।

হামলার সময় ছেলে বজলুর রহমানকে বেধড়ক মারপিট থেকে বাঁচাতে বাবা সুরুজ মিয়া এগিয়ে গেলে হামলাকারীরা তার ওপরেও চড়াও হয়। হামলাকারীরা কুপিয়ে ও পিটিয়ে পিতা-পুত্রকে ঘটনাস্থলে গুরুতর আহত অবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায়।

পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেও অবস্থার অবনতি ঘটলে পিতা-পুত্রকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করা হয়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সুরুজ মিয়া মারা যান। শনিবার (১ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার দিকে নিহত সুরুজ মিয়ার লাশ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসেন স্বজনেরা।

মিঠামইন থানার ওসি মো. জাকির রব্বানী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনার পর থেকে হামলাকারীরা পলাতক রয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর