কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষার অবসান, কিশোরগঞ্জে সিএনজি ফিলিং স্টেশনের উদ্বোধন


 বিশেষ প্রতিনিধি | ২২ ডিসেম্বর ২০১৮, শনিবার, ৫:১৩ | অর্থ-বাণিজ্য 


কিশোরগঞ্জ জেলা শহরসহ জেলার প্রায় সবক’টি উপজেলার কয়েক সহস্রাধিক সিএনজি, প্রাইভেটকারসহ গ্যাসচালিত সকল যানবাহনের বহু প্রতীক্ষিত সিএনজি ফিলিং স্টেশনের শুভ উদ্বোধন হয়েছে শনিবার (২২ ডিসেম্বর) কিশোরগঞ্জের চৌদ্দশত এলাকায়।

কিশোরগঞ্জ-ভৈরব মহাসড়কের কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার চৌদ্দশত এলাকায় ‘সোনার বাংলা সিএনজি ফিলিং স্টেশন’ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে সিএনজিসহ গ্যাসচালিত সকল যানবাহন শ্রমিক-মালিকদের অনেক দিনের কষ্ট, ব্যয় ও সময় অপচয়ের লাঘব হল।

বেলা ১২টায় সোনার বাংলা সিএনজি ফিলিং স্টেশন চত্বরে দোয়া, ফিতা কেটে ও গ্যাস সরবরাহের মধ্যদিয়ে সিএনজি স্টেশনটির উদ্বোধন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে সিএনজি স্টেশনটির উদ্বোধন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ।

মো. হাবিবুর রহমান ফজলুর সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানীর পরিচালক রাসেদুল মাহমুদ রাসেল, জেলা প্রেসক্লাব সভাপতি মোস্তফা কামাল, সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম, জেলা ক্যাব সভাপতি আলম সারোয়ার টিটু, চৌদ্দশত ইউপি চেয়ারম্যান মো. এবি সিদ্দিক খোকা এবং সাবেক চেয়ারম্যান মো. আব্দুল করিম ও আবুল কালাম আজাদ।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন সোনার বাংলা সিএনজি ফিলিং স্টেশন লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রানা চৌধুরী।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এলাকার নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ ছাড়াও ব্যবসায়ী ও পরিবহন মালিক-শ্রমিক উপস্থিত ছিলেন।

বক্তাগণ বলেন, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় এই সিএনজি স্টেশন চালু হওয়ার মাধ্যমে সিএনজি মালিক-শ্রমিক ও সংশ্লিষ্টদের দীর্ঘদিনের কষ্ট, কর্মদিবস অপচয় ও অতিরিক্ত ব্যয়ের অবসান ঘটলো।

তারা বলেন, আগে কিশোরগঞ্জ থেকে ভৈরব, নরসিংদী ও গাজীপুর থেকে অন্তত ১০০ কিলোমিটার আপ-ডাউন করে গ্যাস সংগ্রহ করতে হতো। এতে সময় এবং খরচ দুই-ই বেশি লাগতো। এখন এ দূরবস্থা থেকে মুক্তি মিলেছে। সময় ও খরচ সাশ্রয় ছাড়াও কষ্ট ও হয়রানি থেকেও তাদের নিস্কৃতি মিলেছে।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ বলেন, সিএনজি ফিলিং স্টেশনটি এ এলাকার জন্য নতুন সম্ভাবনার দ্বার খুলে দিয়েছে। সিএনজি স্টেশনটিকে কেন্দ্র করে এ এলাকায় ব্যবসা-বাণিজ্যের নতুন নতুন ক্ষেত্র তৈরি হলে এর মাধ্যমে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে বলেও্ তিনি আশা প্রকাশ করেন।



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর