কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


হাশমত উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ে ডিজিটাল স্কুলের ধারণা নিয়ে ‘টিউটরসইনক’


 সাজন আহম্মেদ পাপন | ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, শনিবার, ৭:৫৫ | তথ্য প্রযুক্তি 


প্রযুক্তির মাধ্যমে কঠিন ও দুর্বোধ্য বিষয়গুলোকে শিক্ষার্থীদের নিকট হৃদয়গ্রাহী ও সহজবোধ্য করার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে ‘টিউটরসইনক’। শিক্ষাবিষয়ক ডিজিটাল কন্টেন্ট প্রস্তুতকারী এ প্রতিষ্ঠানটি  কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের হাশমত উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়কে পূর্ণাঙ্গ ডিজিটাল স্কুল হিসেবে গড়ার উদ্যোগ নিতে চায়।

এ লক্ষ্যে শনিবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুর ২টায় বিদ্যালয়টির ডিজিটাল ল্যাবে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে ‘প্রযুক্তির মাধ্যমে শিক্ষাদানের সুব্যবস্থা’ বিষয়ে প্রজেক্টরের মাধ্যমে একটি ধারণা উপস্থাপন করে ‘টিউটরিইনক’ টিম।

টিউটরসইনক এর উদ্যোগে এ অনুষ্ঠানে হাশমত উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ভূঞা, সহকারী প্রধান শিক্ষক সুরাইয়া ইয়াছমীন ও অন্যান্য শিক্ষকগণ উপস্থিত ছিলেন।

টিউটরসইনকের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান সৈয়দ নূর আলম, ব্যবস্থাপনা পরিচালক মারিয়াম নূর আলম, মার্কেটিং এডভাইজার সৈয়দ শাকিল আহাদ, পরিচালক মাহমুদুল হাসান, পরিচালক রাজি উদ্দিন আহমেদ, অপারেশন ম্যানেজার আদিব রহমান প্রমুখ।

প্রজক্টরের মাধ্যমে ‘প্রযুক্তির মাধ্যমে শিক্ষাদানের সুব্যবস্থা’ বিষয়ে ধারণা উপস্থাপন করেন সৈয়দা মারিয়াম নূর।

উপস্থাপন শেষে বক্তব্যে ‘টিউটরসইনক’ এর চেয়ারম্যান সৈয়দ নূর আলম  জানান, বিশ্বায়নের বর্তমান এই সময়ে প্রযুক্তিভিত্তিক শিক্ষা বাস্তবায়নে ডিজিটাল ক্লাস পরিচালনা বাস্তবিক পক্ষেই সময় উপযোগী। দেশে সর্বক্ষেত্রে ডিজিটাল সেবার যে প্রসার ও অগ্রগতি তা শিক্ষা অর্জনের ক্ষেত্রেও অতিব গুরুত্বপূর্ণ।

প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মারিয়াম নূর আলম জানান, মাল্টিমিডিয়া ক্লাসে ইন্টারেকটিভ হোয়াইট বোর্ড, ভিডিও এনিমেশন, পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশানের মাধ্যমে শিক্ষকের পাঠদান শিক্ষাকে করে তোলে বাস্তব ও আনন্দময়।

প্রতিষ্ঠানটির মার্কেটিং এডভাইজার সৈয়দ শাকিল আহাদ জানান, ডিজিটাল স্কুল হিসেবে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মাল্টিমিডিয়া ট্যাবের মাধ্যমে পাঠগ্রহণের সুবিধা পাবে। এতে সিলেবাস উপযোগী কাস্টমাইজ ডিজিটাল কন্টেন্ট, ভার্চুয়াল ক্লাস, অডিও এবং টেক্সট ভার্সনসহ বহুবিধ শিক্ষাসহায়ক কন্টেন্ট যুক্ত থাকবে। ফলে শিক্ষার্থীরা খুব সহজেই সিলেবাসের পড়া আত্মস্থ এবং পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করবে।

হাশমত উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ভূঞা টিউটরসইনক কৃর্তপক্ষকে ধন্যবাদ জানান তাদের প্রকল্পে বিদ্যালয়টিকে নির্বাচন করায়। এ জন্য তিনি প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতাও জানান। প্রধান শিক্ষক এ ব্যাপারে টিউটরসইনক কর্তৃপক্ষকে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

শিক্ষাবিষয়ক ডিজিটাল কন্টেন্ট প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান টিউটরসইনক এর চেয়ারম্যান সৈয়দ নূর আলম তাড়াইলের সেকান্দরনগর সাহেব বাড়ির কৃতি সন্তান। ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি দেশের আইটি সেক্টরের উন্নয়নে অবদান রেখে চলেছেন।



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর