কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


করিমগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আলোচনায় আশরাফ আলী


 সাজন আহম্মেদ পাপন | ২০ জানুয়ারি ২০১৯, রবিবার, ৯:৩৪ | করিমগঞ্জ  


আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সরব হয়ে উঠেছে কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার রাজনৈতিক অঙ্গণ। করিমগঞ্জ উপজেলার গ্রাম থেকে শহর সর্বত্রই চলছে আলোচনা, উঠছে চায়ের কাপে ঝড়।

জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষ হতে না হতেই আবার সর্বত্রই আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে আগামী উপজেলা নির্বাচনের দলীয় মনোনয়ন। বিশেষ করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে কে হচ্ছেন দলীয় প্রার্থী? এ নিয়ে চায়ের দোকান থেকে শুরু করে সর্বত্র চলছে জল্পনা কল্পনা। সেই সাথে চলছে রাজনৈতিক মহলে নানা হিসাব নিকাশ।

নির্বাচন কমিশনের ভাষ্য অনুযায়ী, আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করার কথা। এই নিয়ে সারা দেশের মতো করিমগঞ্জ উপজেলাতেও নবীন ও প্রবীণ সম্ভাব্য প্রার্থীরা শুরু করেছেন নিজেদের প্রচার প্রচারণা। সম্ভাব্য প্রার্থীদের সমর্থকেরা বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন হাট, বাজার ও গুরুত্বপূর্ণ স্থান পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন দিয়ে ছেয়ে গেছে।

করিমগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন ক্লিন ইমেজখ্যাত কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মোঃ আশরাফ আলী। তিনি শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম স্মৃতি সংসদেরও যুগ্ম সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি দলীয় কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি এলাকায় বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক অঙ্গণে ব্যাপক ভূমিকা রেখে চলছেন।

মোঃ আশরাফ আলী প্রয়াত জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের নামে একটি এতিমখানা প্রতিষ্ঠা করেছেন। করিমগঞ্জ তাড়াইল ফাউন্ডেশনের চেয়াম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করছেন। করিমগঞ্জ রাবেয়া খাতুন মহিলা মাদরাসার সহ-সভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছেন এই ছাত্রলীগ নেতা।

রাজনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, মোঃ আশরাফ আলী একজন সৎ, নিষ্ঠাবান ছাত্রনেতা। মানুষের  সেবা করাকেই তিনি মহান ব্রত হিসেবে বেছে নিয়েছেন। মোঃ আশরাফ আলী উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী হলে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি হিসেবে সমাজ ও দেশের উন্নয়ন, ডিজিটাল বাংলাদেশের সাথে তাল মিলিয়ে একটি পরিচ্ছন্ন উপজেলা গঠনে করিমগঞ্জবাসী তার পক্ষে রায় দিবেন।

মোঃ আশরাফ আলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, উপজেলাবাসীর সেবা করা ভাগ্যের ব্যাপার। আমি দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত আছি। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গঠনে এবং শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে কাজ করে যাচ্ছি। একই সঙ্গে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রমকে গতিশীল করতে নেতা কর্মীদের সাথে নিবিড় সম্পর্ক তৈরি করেছি।

আশরাফ আলী বলেন, আওয়ামী লীগের উন্নয়ন তৃণমূল পর্যায়ে পৌঁছে দিতে আমি দলের প্রার্থিতা চাইবো। আমরা একটাই লক্ষ্য, করিমগঞ্জ উপজেলার উন্নয়নে অবদান রাখা। আলোকিত একটা উপজেলা গঠনে আমিও কাজ করতে চাই।

আশরাফ আলী যোগ করেন, কেবল নির্বাচনকে সামনে রেখে নয়, দীর্ঘদিন থেকে আমি করিমগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন বিষয়ে সাধারণ মানুষের পাশে থেকে কাজ করছি। কাজ করতে গিয়ে আমার মনে হয়েছে, কেবল ব্যক্তিগতভাবে তাদের ভাগ্য উন্নয়ন করা সম্ভব নয়। এজন্য আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে বড় পরিসরে তাদের উন্নয়ন করতে চাই।

এজন্য তিনি সকল মহলের সহযোগিতা ও সমর্থন কামনা করেছেন।



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর