কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা

পাকুন্দিয়ায় আনসার-ভিডিপি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ


 সাখাওয়াত হোসেন হৃদয় | ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১২:৪২ | পাকুন্দিয়া  


পাকুন্দিয়া উপজেলা আনসার-ভিডিপি’র ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রওশন আরা বেগমের বিরুদ্ধে অনিয়ম, দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ ওঠেছে। নির্বাচনসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ডিউটি প্রদানে ঘুষ, ইউনিফরম প্রদানে ঘুষ, বিভিন্ন অফিসে মালামাল প্রদানে ঘুষ, গ্রাম ভিত্তিক মৌলিক প্রশিক্ষণ প্রদানে ঘুষ, সম্মানি ভাতা প্রদানে ঘুষ এবং নিয়মিত অফিসে না আসাসহ নানা ধরনের অনিয়ম, দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ তুলে ওই কর্মকর্তার বিচারের দাবিতে মঙ্গলবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এর কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন উপজেলার বরাটিয়া গ্রামের সাতজন গ্রাম ভিত্তিক মৌলিক প্রশিক্ষণার্থী।

সম্প্রতি একই দাবিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা আনসার-ভিডিপি কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন উপজেলার ১৮ জন ভুক্তভোগী আনসার-ভিডিপি সদস্য।

এছাড়া একই দাবিতে একাধিকবার বিভিন্ন উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার না পাওয়ায় ভুক্তভোগী আনসার-ভিডিপির সদস্যের মাঝে ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে।

লিখিত অভিযোগ ও ভুক্তভোগী আনসার-ভিডিপি সদস্যদের সাথে আলাপ করে জানা যায়, উপজেলা আনসার ও ভিডিপি ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রওশন আরা বেগম দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই ঘুষ-বাণিজ্যে বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন। গত ১লা জানুয়ারি থেকে ১৪ই জানুয়ারি পর্যন্ত মোট ১০ দিনের একটি গ্রাম ভিত্তিক মৌলিক প্রশিক্ষণ হয় পাকুন্দিয়া উপজেলার বরাটিয়া গ্রামের জসিম উদ্দিনের বাড়িতে। এতে দুটি প্লাটুনে ৩২ জন মহিলা ও ৩২ জন পুরুষ অংশ নেন। প্রশিক্ষণটি উপজেলা আনসার-ভিডিপি ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রওশন আরা বেগমের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু ২২ দিন পেরিয়ে গেলেও তাদের প্রাপ্য ১০ দিনের প্রশিক্ষণ ভাতা ও প্রশিক্ষণ সনদপত্রটি এখনও দেননি রওশন আরা বেগম।

এ ব্যাপারে বরাটিয়া গ্রামের প্রশিক্ষণার্থী আবু হানিফ, মামুনুর রশিদ ও মাহফুজসহ কয়েকজন অভিযোগ করে বলেন, আমাদের প্রাপ্য ১০ দিনের প্রশিক্ষণ ভাতা ও সনদপত্র না পাওয়ার বিষয়ে রওশন আরা বেগমের কাছে জানতে অফিসে গেলে তিনি আমাদের প্রতি ক্ষিপ্ত হয়ে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন এবং হুমকি-ধামকি দিয়ে অফিস থেকে বের করে দেন।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে উপজেলা আনসার ভিডিপি ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রওশন আরা বেগমের মুঠোফোন নম্বরে কল করা হলে, সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে তিনি মোবাইল কলটি কেটে দেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অন্নপূর্ণা দেবনাথ বলেন, অভিযুক্ত রওশন আরা বেগম কারও কথা শুনেন না। তিনি অত্যন্ত বেপরোয়া। তার বিষয়ে জেলা কর্মকর্তার সাথে আলোচনা হয়েছে। অচিরেই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি আশ্বাস দিয়েছেন।



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর



















সেগুনবাগিচা, গৌরাঙ্গবাজার, কিশোরগঞ্জ-২৩০০
মোবাইল:০ ১৮১৯ ৮৯১০৮৮, ০১৮৪১ ৮১৫৫০০
kishoreganjnews247@gmails.com
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি: সাইফুল হক মোল্লা দুলু
প্রধান সম্পাদক: আশরাফুল ইসলাম
সম্পাদক: সিম্মী আহাম্মেদ