কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

করিমগঞ্জে আলোচনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার সাইদুর


 মো: আল আমিন, কন্ট্রিবিউটিং এডিটর | ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার, ৮:০৯ | করিমগঞ্জ  


উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে করিমগঞ্জে  চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে প্রায় ডজনখানেক নেতা মাঠে কাজ করছেন। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দুই বড় রাজনৈতিক দলের সম্ভাব্য প্রার্থীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও পোস্টারে নিজেদের প্রার্থীতার বিষয় জানান দিলেও ভোটারদের আলোচনায় আছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ক্বারী সাইদুর রহমান ভূঁইয়া।

নির্বাচনী প্রচারে স্বতন্ত্রতা, ধর্মীয় সভা-সমাবেশে যোগদান, মসজিদ-মাদরাসা ও বিভিন্ন বিদ্যালয়ে অনুদান, অসহায় গরীবদের পাশে দাঁড়ানো ইত্যাদি কারণে আলোচনায় তিনি।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বর্তমানে আলোচনায় থাকা ইঞ্জিনিয়ার ক্বারী সাইদুর রহমানের বাড়ি জয়কা ইউনিয়নের পানাহার গ্রামে। তার বাবার নাম হাজী আবদুসছোবহান ভূঁইয়া। পেশায় ব্যবসায়ী ইঞ্জিনিয়ার সাইদুর রহমান ভূঁইয়া প্রতি বছর তার নিজ গ্রামে আন্তর্জাতিক ক্বারীদের নিয়ে দেশের অন্যতম বৃহৎ ক্বেরাত সম্মেলন করায় করিমগঞ্জ উপজেলা বিশেষ করে দক্ষিণ অঞ্চলের সাধারণ মানুষের কাছে তিনি ব্যাপক সমাদৃত।

এ ছাড়াও নির্বাচনী মাঠে তাঁর গঠনমূলক বক্তব্য, বিজ্ঞান ও প্রগতিমুখী চিন্তা, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও কৃষি নিয়ে বিশেষ ভাবনার কারণে নানা বয়সের ভোটারদের কাছে তিনি জনপ্রিয়।

সূত্র জানায়, গত কয়েক বছর ধরে উপজেলার বিভিন্ন ধর্মীয় সভা-সমাবেশে যোগ দিয়ে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন তিনি। অনুদান দিয়ে যাচ্ছেন বিভিন্ন মসজিদ-মাদরাসা, বিদ্যালয় ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে। এসব কারণে উপজেলার সাধারণ মানুষ তাঁর প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছেন। এবার নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তাঁকে বিশেষ চোখে দেখছেন ভোটারেরা।

গুনধর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচিত সভাপতি হিসেবে দায়িত্বে থাকা ইঞ্জিনিয়ার সাইদুর ইদানিং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে গিয়ে বক্তব্য, কুরআন তেলাওয়াত ও শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রেরণামূলক উপহার দিয়ে সবার মন জয় করে নিচ্ছেন।

নির্বাচন বিশ্লেষকরা বলছেন, বিভিন্ন ইতিবাচক কর্মকাণ্ডে নিজেকে সাধারণ মানুষের কাছে স্বচ্ছ ইমেজের ব্যাক্তি হিসেবে পরিচয় করাতে পারায় এবং উপজেলার দক্ষিণাঞ্চলের বাসিন্দা হওয়ায় নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে সুবিধাজনক অবস্থানে থাকবেন ইঞ্জিনিয়ার সাইদুর।

উপজেলার নোয়াবাদ ইউনিয়নের ঝাউতলা গ্রামের বাসিন্দা হাবিবুর রহমান বলেন, ‘দক্ষিণ অঞ্চলের তরুণ প্রজন্মের সবাই ইঞ্জিনিয়ার সাইদুর রহমানের পক্ষে ঐক্যবদ্ধ। এলাকার বয়োবৃদ্ধসহ সর্বস্তরের জনতা তাঁকে স্নেহ ও ভালোবাসেন। একজন সৎ বিনয়ী ও যোগ্য প্রার্থী হিসেবে আমরা তাঁর সঙ্গে প্রচারণায় আছি। তিনি আগামী নির্বাচনে মূল লড়াইয়ে থাকবেন।’

গুনধর ইউনিয়নের খয়রত গ্রামের তরুণ আতাউর রহমান বলেন, ‘একজন যোগ্য প্রার্থী হিসেবে আমরা ইঞ্জিনিয়ার সাইদুর রহমানকে বেছে নিয়েছি। গত পাঁচ বছর আমরা তাঁর কাছ থেকে সাধ্যমতো সেবা-সহযোগিতা পেয়েছি। তিনি জনগণকে আপন করে নিয়েছেন। তিনি এলাকার মানুষের পাশে থেকেছেন।’

জয়কার পাড়াকুল গ্রামের বাসিন্দা মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘উচ্চশিক্ষিত, ভদ্র, বিনয়ী ও ভালো বক্তা হিসেবে পুরো উপজেলার মানুষ তরুণ প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার সাইদুর রহমানকে ভালোবাসে। একজন শিক্ষাবন্ধু ও প্রকৃত জনদরদি  নেতা হিসেবে তাঁর জুড়ি নেই। আমরা আশা করছি আগামী নির্বাচনে তাঁকে বিজয়ী করতে পারবো।’

ইঞ্জিনিয়ার ক্বারী সাইদুর রহমান বলেন, ‘জনতাই আমার শক্তি। জনতার ভালোবাসা ও আস্থাকে পুঁজি করে উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়তে চাই। সর্বস্তরের জনতা যেভাবে আমাকে হৃদয় থেকে গ্রহণ করেছে, তাতে আমি অভিভূত। জনগণের ভালোবাসা দেখে আমি শতভাগ আশাবাদী। সুষ্ঠু নির্বাচনে ইনশাআল্লাহ আমি বিজয়ী হবো। ’




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর