কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


পঞ্চম বারের মতো পুলিশের সর্বোচ্চ পদক পেলেন কিশোরগঞ্জের কৃতি সন্তান এসপি হারুন


 বিশেষ প্রতিনিধি | ৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, মঙ্গলবার, ১২:৩৫ | বিশেষ সংবাদ 


রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি হিসেবে পঞ্চম বারের মতো পুলিশ পদক পেলেন কিশোরগঞ্জের কৃতি সন্তান নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বিপিএম (বার), পিপিএম (বার)। এবার বিপিএম (সেবা) পদক লাভ করেছেন তিনি। সোমবার (৪ ফেব্রুয়ারি) রাজারবাগে পুলিশ সপ্তাহের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁকে পদক পরিয়ে দেন।

প্রতি বছর পুলিশ বাহিনীর সদস্যগণের অসীম সাহসিকতা, বীরত্বপূর্ণ কাজ, গুরুত্বপূর্ণ মামলার রহস্য উদঘাটন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণ, দক্ষতা, কর্তব্যনিষ্ঠা, সততা ও শৃঙ্খলামূলক আচরণের মাধ্যমে প্রশংসনীয় অবদানের জন্য রাষ্ট্রীয়ভাবে তাঁদের বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম) ও প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক (পিপিএম) এর মাধ্যমে পুরস্কৃত করা হয়।

এবার বিপিএম (সেবা) পেয়েছেন নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বিপিএম (বার), পিপিএম (বার)। এর আগে তিনি পরপর দুই বার বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম) এবং দুই বার প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক (পিপিএম)পদক লাভ করেন। এর মধ্যে ২০১৬ ও ২০১৭ সালে টানা দুই বার তিনি বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম) এবং ২০১৩ ও ২০১৪ সালে দুইবার প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক (পিপিএম) লাভ করেন।

ফলে এবার নিয়ে পঞ্চম বারের মতো সম্মান ও গৌরবের পুলিশ পদক পেলেন কিশোরগঞ্জের হাওর এলাকার সূর্য সন্তান মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।

মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) গত বছরের ৪ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করেন। সেখানে যোগদানের পর একাদশ জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পাদনে তিনি অসামান্য ভূমিকা রাখেন। এছাড়া তিনি নারায়ণগঞ্জ জেলা থেকে মাদক, ভূমিদস্যু, হকার, ঝুট সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান ঘোষণা করেন। শহরের যানজট নিরসনে অবৈধ সিএনজি, অটোরিকশার স্ট্যান্ড উচ্ছেদসহ হকার উচ্ছেদ করেছেন। এতে নারায়ণগঞ্জবাসীর ব্যাপক সমর্থন ও প্রশংসা পেয়েছেন তিনি। তাঁর কর্মদক্ষতার কারণে তিনি পর পর দুই বার ঢাকা রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ পুলিশ সুপার হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন। এবার বিপিএম পাওয়ায় সম্মানসূচক পুলিশ পদক পাওয়ার তালিকায় পাঁচবার তিনি তাঁর নাম লেখালেন।

মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) কিশোরগঞ্জ জেলার হাওর অধ্যুষিত মিঠামইন উপজেলার ঘাগড়া ইউনিয়নের গর্বিত সন্তান।



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর