কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


রিয়াদের এগিয়ে চলা


 অনলাইন ডেস্ক | ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, সোমবার, ১১:১৫ | প্রিয় বন্ধু 


সবে মাত্র এইচএসসি শেষ করেছে।  কিন্তু স্বাবলম্বী হয়েছে অনেক আগেই। স্বপ্ন তার আকাশ ছোঁয়া। বড় হয়ে পথ শিশুদের জন্য কাজ করা। মানবতার সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করা।

বর্তমানটা তার চলছে চাকুরি ও পড়াশোনা দু’টাই সমান তালে। রাজধানীর মিরপুর ৬ ও ২ এর একটি কফি হাউজে সে চাকরী করে। রেস্টুরেন্টে আগত কাস্টমারদের পরিচিত মুখ।

বলা হচ্ছে রিয়াদুল ইসলামের কথা। পুরো নাম আল-আমিন আনসারি -রিয়াদ।  পাঁচ সদস্যর পরিবারে রিয়াদ প্রবাসী বাবার (মো: কামাল ইসলাম) বড় ছেলে। রিয়াদের বেড়ে ওঠা কুমিল্লার  প্রত্যন্ত এক গ্রামে।

রিয়াদ ক্লাস এইট থেকেই স্বপ্ন দেখতো বড় হয়ে ডাক্তার হবে। রিয়াদের মুখে শোনা গেল- “আমি বড় হয়ে ডাক্তার হতে চেয়েছি। তবে আমার  চাচা জিয়াউর রহমানের সুবাদে পড়াশোনার পাশাপাশি এই রেস্টুরেন্টের কাজে নিজেকে জড়ানো। মানুষের সঙ্গে মিশতে ভাল লাগে। মনে হয় মানুষের জন্য আমার অনেক কিছুই করার আছে।”

রিয়াদ বলেন, আমার বয়সে যারা স্বাবলম্বী হচ্ছেন পড়াশোনার পাশাপাশি তাদের উচিৎ সৎ থাকা। মানুষের ভালবাসা অর্জন করা। রেস্টুরেন্টের প্রতিটা কাস্টমারকে আমার আপন মনে হয়। তাই তাদেরকে সর্বোত্তম সেবা দিতে আমি পছন্দ করি।

নিজেকে নিয়ে গল্পের পাশাপাশি রিয়াদ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন রেস্টুরেন্টের সিইও মাহতাব স্যারের প্রতি। বলেন, চমৎকার মানুষ তিনি। গুরুজন। শিক্ষকের মত। স্যারের সানিধ্যে আমি অনেক কিছু শিখতে পেরেছি। আমার এগিয়ে চলার প্রেরণাও তিনি।

কাজের ক্ষেত্র  হিসেবে রিয়াদ বলেন, আমি যেখানে কাজ করি সেখানকার মালিক ও কর্মকর্তারা অত্যন্ত ভাল। বেশ আন্তরিক। তারা  আমার পরিবারের সদস্যর মতই। মিলেমিশে কাজ করে সময়গুলো বরং আনন্দের সঙ্গেই কাটে। শেখার আছে অনেক কিছু। কাস্টমার ম্যানেজমেন্টটা অনেক বড় ইস্যু। এই দিকটা নিয়ে সার্বক্ষণিক সচেতন থাকতে হয়। কাস্টমারের পছন্দের খাবার, কিম্বা ভাল কোন নতুন ডিশ তাদের সামনে প্রেজেন্ট করাটাও একটা দক্ষতা বটে।

রিয়াদের ইচ্ছে, পড়াশোনা শেষ করে যদি সুযোগ মিলে তাহলে ইউনেস্কোর সঙ্গে কাজ করা। শিশুদের জন্য। সবার প্রিয় রিয়াদুল ইসলাম তাকে চমৎকার পরিবেশে কাজের সুযোগের জন্য ধন্যবাদ জানান রেস্টুরেন্ট এর মালিক ও স্টাফদের সবাইকে।

প্রতিটা দিন রিয়াদের কেটে যায় রেস্টুরেন্টের কর্মকর্তা, স্টাফ,  কাস্টমারদের সঙ্গে মিলে মিশেই। সে সঙ্গে ধীরে ধীরে বড় হতে থাকে রিয়াদের স্বপ্ন।



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর