কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


প্রভুভক্ত কুকুর সন্ধান দিলো চুরি হওয়া গরুর, ষাঁড়ের চামড়া-রশি উদ্ধার


 মো. জাকির হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার, হোসেনপুর | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার, ৭:১৩ | বিশেষ সংবাদ 


হোসেনপুরে চুরি হওয়া গরুর সন্ধান দিয়েছে প্রভুভক্ত এক কুকুর। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। উপজেলার সিদলা ইউনিয়নের চর বিশ্বনাথপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, চর বিশ্বনাথপুর গ্রামের কৃষক মধু মিয়া (৫৫) এর একটি ষাঁড় গরু ছিল যার আনুমানিক মূল্য ৭০ থেকে ৭৫ হাজার টাকা। তার একটি পোষা কুকুরও রয়েছে। গোয়াল ঘরে গরুটির সাথে তিনি পোষা কুকুরটিকে রাখতেন।

বৃহস্পতিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত ৩টার দিকে গোয়াল ঘর দেখে এসে তিনি ঘুমিয়ে পড়েন। কিঝুক্ষণ পর মধু মিয়ার স্ত্রী খালেদা আক্তার গিয়ে দেখেন, গোয়াল ঘরে ষাড় গরুটি নেই। এছাড়া তাদের পোষা কুকুরটিকেও তিনি খুঁজে পাচ্ছিলেন না। অনেক খোঁজাখুজির পরও গরুটির কোন খোঁজ পাচ্ছিলেন না তারা।

শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) ভোরের দিকে পোষা কুকুরটি গোয়াল ঘর থেকে উধাও হয়ে যাওয়া গরুটির একটি কান নিয়ে গৃহস্তের বাড়িতে এসে হাজির হয়। গরুটির কান থেকে টপটপ করে তখনো তাজা রক্ত ঝরছিল।

পরে কুকুরটি দৌড় দিলে কৃষক মধু মিয়াও কুকুরটির পেছনে পেছনে ছুটেন। কুকুরটি এক কসাইয়ের দোকানে গিয়ে হাজির হয়। এতে কৃষক মধু মিয়ার সন্দেহ ঘনীভূত হলে এলাকাবাসীর সহায়তায় কসাই খোকা মিয়ার দোকান থেকে উদ্ধার করা হয় জবাইকৃত ষাঁড়ের চামড়া।

হোসেনপুরের পৌর মেয়র আব্দুল কাইয়ুম ও সিদলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. সিরাজ উদ্দিনের সহায়তায় শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে জব্দ করা ষাঁড়ের চামড়া এখন ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজ উদ্দিনের হেফাজতে রয়েছে।

চুরি হওয়া গরুর মালিক মধু মিয়া বলেন, আমার গরুটি রাতের আঁধারেই জবাই করে ফেলা হয়েছে, আমি এর সঠিক বিচার চাই।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর