কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে বিএফএফ-সমকাল জাতীয় স্কুল বিতর্কে চ্যাম্পিয়ন এসভি সরকারি বালিকা


 বিশেষ প্রতিনিধি | ১১ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৭:২২ | বিশেষ সংবাদ 


বিজ্ঞানমনস্ক জাতি গঠন করার পথে আমাদের প্রচলিত শিক্ষাব্যবস্থাই হচ্ছে বড় বাধা। এখন শিক্ষার্থীর চেয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বেশি। শিশুকাল থেকেই বাচ্চার পিঠে বইয়ের বোঝা চাপিয়ে দিয়ে তাদের মধ্যে ভীতি তৈরি করা হচ্ছে। এই অসুস্থ প্রতিযোগিতা বন্ধ করা না গেলে বিজ্ঞানমনস্ক জাতি গঠনের স্বপ্ন আজীবন স্বপ্নই থেকে যাবে।

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) কিশোরগঞ্জ শহরের জেলা স্মরণী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বিএফএফ-সমকাল জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী পর্বে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন রাষ্ট্রপতি-তনয় ও কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক।

বক্তৃতায় রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এমপি আরো বলেন, দক্ষ মানবসম্পদ গঠনে বিজ্ঞান চর্চার গুরুত্ব অপরিসীম। বিজ্ঞানমনস্ক প্রজন্মই আমাদের দেশকে স্বপ্নের সোনালী অধ্যায়ে নিয়ে যেতে পারে।

সমকালের কিশোরগঞ্জের নিজস্ব প্রতিবেদক সাইফুল হক মোল্লা দুলুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরণ পর্বে  অন্যান্যের মাঝে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মো. মোশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার), অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দুলাল চন্দ্র সূত্রধর, বিএফএফ’র নির্বাহী পরিচালক সাজ্জাদুর রহমান চৌধুরী, সমকালের সহকারী সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম আবেদ, ছড়াকার ও মুক্তিযুদ্ধের গবেষক জাহাঙ্গীর আলম জাহান, জেলা স্মরণী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাবিয়া আক্তার খাতুন, জেলা বিএমএ’র সাধারণ সম্পাদক ডা. আবদুল ওয়াহাব বাদল, অষ্টগ্রাম রোটারি ডিগ্রি কলেজের সহকারি অধ্যাপক ও লেখক ফারজানা আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আব্দুল গণি, সুহৃদ সভাপতি ও নাট্য সংগঠক হারুন-আল-রশীদ, সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান সাঈদ প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা বলেন, নতুন প্রজন্মকে বিজ্ঞানের প্রতি আগ্রহী করার জন্য শিক্ষা ব্যবস্থার কারিকুলাম ঢেলে সাজাতে হবে। কারিগরি শিক্ষার প্রতি অধিকতর গুরুত্ব দিয়ে দক্ষ মানবশক্তি গড়ে তুলতে হবে। নয়তো দুর্বিষহ বেকারত্ব সমস্যা দিন দিন বাড়তেই থাকবে।

পাশাপাশি ফেনীর সোনাগাজীতে অতিসম্প্রতি নুসরাত রাফি নামের তরুণ শিক্ষার্থীর দুঃখজনক মৃত্যু এবং মাদ্রাসা অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলার পাশবিক আচরণের প্রসঙ্গ তুলে বক্তাগণ বলেন, বিজ্ঞান শিক্ষাই এসব অপকর্ম রোধের জন্য সবচেয়ে কার্যকর মাধ্যম হতে পারে।

সকাল ১০টায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিএফএফ’র নির্বাহী পরিচালক সাজ্জাদুর রহমান চৌধুরী বলেন, দেশে বিজ্ঞান শিক্ষার হার দিন দিন কমে আসছে, যা আমাদের আগামী বাংলাদেশের জন্য মোটেই সুখকর নয়। বিজ্ঞানের প্রতি এই প্রজন্মকে আগ্রহী করার দায়িত্ব আমাদের সবার। বিজ্ঞান বিতর্ক আয়োজনের মাধ্যমে বিজ্ঞান শিক্ষার গুরুত্ব সম্পর্কে প্রজন্মকে অবহিত করা এবং যুক্তিনির্ভর চিন্তাশীল জাতি গঠন করা আমাদের মূল উদ্দেশ্যে।

প্রতিযোগিতায় জেলার মোট আটটি বিদ্যালয়ের তার্কিক দল অংশ গ্রহণ করে। অনবদ্য যুক্তি-তর্ক ও বাচনভঙ্গিতে বিতার্কিকদের উপস্থাপনা উপস্থিত দর্শক-শ্রোতাদের মুগ্ধ ও বিমোহিত করে।

প্রথম পর্বে ৮টি দল বিষয়ভিত্তিক বিতর্কে অংশ নেয়। পরে বিজয়ী হয়ে চারটি দল দ্বিতীয় পর্বে উন্নীত হয়।

দ্বিতীয় পর্বের বিতর্কে অংশ নিয়ে কিশোরগঞ্জ এসভি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় দল ও কিশোরগঞ্জ জেলা স্মরণী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় দল চূড়ান্ত পর্বে উত্তীর্ণ হয়।

চূড়ান্ত পর্বে ‘বর্তমান শিক্ষাব্যবস্থা বিজ্ঞানমনস্ক সমাজ গঠনের অন্তরায়’ শীর্ষক প্রতিপাদ্যের ওপর মনোজ্ঞ ও হৃদয়গ্রাহী বিতর্কে অংশ নিয়ে কিশোরগঞ্জ এসভি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় জেলা পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন হয়।

পর্বের বিতার্কিকদের সাবলিল ও সুন্দর উপস্থাপনা উপস্থিত অতিথি ও দর্শক-শ্রোতাদের মুগ্ধ করে। বিজ্ঞ বিচারক মণ্ডলির গভীর বিশ্লেষণ ও বিবেচনায় খুবই অল্প নম্বারের ব্যবধানে কিশোরগঞ্জ এসভি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বিতার্কিকরা বিজয়ের মালা ছিনিয়ে নেয়।

সবশেষে চুড়ান্ত পর্বের মডারেটর সহকারি অধ্যাপক ফারজানা আহমেদ কিশোরগঞ্জ এসভি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়কে চ্যাম্পিয়ান ও জেলা স্মরণী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়কে রানার্স-আপ ঘোষণা করার সাথে সাথে পুরো অডিটোরিয়াম ব্যাপক করতালিতে মুখরিত হয়ে ওঠে। শ্রেষ্ঠ বির্তাকিক হন এসভি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী পারমিতা ঘোষ।

বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী আটটি দল হচ্ছে, কিশোরগঞ্জ এসভি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কিশোরগঞ্জ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, জেলা স্মরণী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, আরজত আতরজাত উচ্চ বিদ্যালয়, জেলা স্মরনী উচ্চ বিদ্যালয়, বাজিতপুর আফতাবউদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজ এবং বাজিতপুর উপজেলার দিলালপুর আঃ করিম উচ্চ বিদ্যালয়।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর