কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


পরীক্ষা দেয়া হলো না তারেকের! বাবার মতোই সড়কে ঝরলো প্রাণ


 স্টাফ রিপোর্টার | ২১ এপ্রিল ২০১৯, রবিবার, ১:০৮ | কটিয়াদী 


কটিয়াদীতে মোটর সাইকেলে করে পরীক্ষা কেন্দ্রে যাওয়ার পথে মর্মান্তিক এক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন মো. তারেক মিয়া (১৮) নামে এক এইচএসসি পরীক্ষার্থী। নিহত তারেক মিয়া কটিয়াদী পৌরসভার বেথইর মহল্লার মৃত মো. ফজলু মিয়ার পুত্র ও মুন্সী আ. হেকিম কারিগরি কলেজের ছাত্র।

শনিবার (২০ এপ্রিল) দুপুর দেড়টার দিকে কটিয়াদী- মানিকখালী সড়কের বাগরাইট এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি টমটমের সাথে মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটর সাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন তারেক। পরে বিকাল ৫টার দিকে বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর তার মৃত্যু হয়।

এই ঘটনার মাত্র ছয় মাস আগে তারেকের পিতা মো. ফজলু মিয়া এক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন। পিতার মৃত্যুর মাত্র ছয় মাসের ব্যবধানে পুত্রের এমন মর্মান্তিক মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

স্বজনেরা জানান, শনিবার (২০ এপ্রিল) বিকাল ২ টায় নির্ধারিত এইচএসসি ( বিএম) শিক্ষাক্রমের ১ম বর্ষ বোর্ড সমাপনি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য তারেক মোটর সাইকেলে করে কটিয়াদীতে ডা. আ. মান্নান মহিলা কলেজ কেন্দ্রে  যাচ্ছিল। পথে বাগরাইট এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি টমটমের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মোটর সাইকেল থেকে তারেক ছিটকে রাস্তায় পড়ে গেলে গুরুতর আহত হয়।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্বজনেরা তারেককে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করার পরপরই তার মৃত্যু হয়।

নিহত তারেকের মা  জায়েদা  খাতুন  জানান বলেন, আমার ছেলে পরীক্ষা দিতে গিয়ে লাশ হয়ে বাড়িতে ফিরল। কিছুদিন আগে এমনিভাবে সড়ক দুর্ঘটানায় আমার স্বামীকে হারিয়েছি। এ শোক আমি সইবো কেমনে!

তিনি বিলাপ করতে করতে বলেন, আমার পাঁচ ছেলের মাঝে তারেক চতুর্থ। তার বড় তিন ভাই বিদেশে রয়েছে।  অনেক আশা করেছিলাম, তারেককে পড়ালেখা করিয়ে চাকুরীজীবী বানাবো। আজ আমার একি সর্বনাশ হলো!

তারেকের শিক্ষক মুন্সী আ. হেকিম কারিগরি কলেজের অধ্যক্ষ ও এইচএসসি ( বিএম) পরীক্ষার কেন্দ্র সচিব ফজলুল হক জোয়ারদার আলমগীর জানান, তারেক নিয়মিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করলেও আজ (শনিবার) অনুপস্থিত থাকায় আমরা চিন্তিত ছিলাম। সন্ধ্যার পর তারই সহপাঠী  অপর ছাত্রের কাছে সড়ক দুর্ঘটনায় তারেকের মৃত্যুর সংবাদ শুনি।

তারেকের বাড়িতে গিয়ে তার লাশ দেখে আর কান্না থামাতে পারিনি। তারেক হাসিমাখা মুখের একজন  ভাল ছাত্র ছিল। তার  মৃত্যুতে কলেজের সকল শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

রোববার (২১ এপ্রিল) বাদ আসর বাড়ির আঙিনায় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে বলেও অধ্যক্ষ ফজলুল হক জোয়ারদার আলমগীর জানান।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর