কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে জামাই হত্যাকারী শ্বশুর গ্রেপ্তার, স্বীকারোক্তিতে খুনের লোমহর্ষক বর্ণনা


 স্টাফ রিপোর্টার | ৩ জুন ২০১৯, সোমবার, ৮:৩৯ | কিশোরগঞ্জ সদর 


কিশোরগঞ্জে পারিবারিক কলহের জের ধরে জামাইকে কুপিয়ে হত্যার পর পালিয়ে গিয়েও রেহাই মিলেনি ঘাতক সৎ শ্বশুর আবুবকর (৫৫) এর। নৃশংস এই হত্যাকাণ্ডের তিন দিন পরই তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার (৩ জুন) সকালে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার নাকভাঙ্গা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর আদালতে পাঠানো হলে ঘাতক আবুবকর আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

কিশোরগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. রফিকুল বারী এই জবানবন্দি রেকর্ড করেন। স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ডের পর ঘাতক আবুবকরকে কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

গ্রেপ্তার হওয়া ঘাতক আবুবকর কিশোরগঞ্জ শহরের পূর্ব তারাপাশা এলাকার ধনু মিয়ার ছেলে।

অন্যদিকে নিহতের নাম ওমর ফারুক (৩০)। সে ধর্মান্তরিত হয়ে হিন্দু থেকে মুসলমান হয়েছিল। ধর্মান্তরিত হওয়ার আগে তার নাম ছিল রূপন বণিক। সে শহরের বত্রিশ জেলা স্মরণী মোড় এলাকার মৃত মধু চন্দ্র বণিকের ছেলে।

মামলার তদন্ত সূত্র জানিয়েছে, আদালতে দেয়া ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে ঘাতক আবুবকর নৃশংস এই হত্যাকাণ্ডের লোমহর্ষক বিবরণ দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) দুপুরে আবুবক্কর ঘরে থাকা ধারালো দা দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে ওমর ফারুককে ঘটনাস্থলেই হত্যা করে। ঘটনার পর পরই ঘাতক আবুবকর গা-ঢাকা দেয়। পারিবারিক কলহের জের ধরে সে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটিয়েছে বলে স্বীকারোক্তিতে জানিয়েছে।

কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মো. আবুবকর সিদ্দিক জানান, হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের স্ত্রী শারমিন আক্তার বাদী হয়ে ঘাতক আবুবকরকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন। ঘটনার পর পালিয়ে যাওয়া ঘাতক আবুবকর জামালপুর ও হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপন করে। এই সময়ে পুলিশও তথ্য প্রযুক্তিসহ বিভিন্ন পদ্ধতিতে আবুবকরের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে তাকে অনুসরণ করে।

জামালপুর ও হবিগঞ্জ হয়ে সোমবার (৩ জুন) সকালে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার নাকভাঙ্গা এলাকায় আবুবকর অবস্থান করলে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে। সকাল ১০টার কিছু পরে নাকভাঙ্গা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারের পর ঘাতক আবুবকর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার অকপট বিবরণ দেয়। পরে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে ঘাতক আবুবকর নৃশংস এই হত্যাকাণ্ডের লোমহর্ষক বিবরণ দেয়।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর