কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


মিঠামইনে সংঘর্ষে আহত একজনের মৃত্যু


 স্টাফ রিপোর্টার | ১১ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার, ৭:২৫ | মিঠামইন 


মিঠামইনে ফুটবল খেলা নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় একজন নিহত হওয়ার পর এবার আহত একজনের মৃত্যু হয়েছে। তার নাম আব্দুল মজিদ (৪০)। তিনি সোমবার (১০ জুন) দিবাগত রাত ১টার দিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

নিহত আব্দুল মজিদ মিঠামইন উপজেলার কাটখাল ইউনিয়নের হাসিমপুর গ্রামের মৃত আব্দুল হাসিমের ছেলে।

এর আগে গত ৮ জুন সংঘর্ষের দিন টেঁটাবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই দীন ইসলাম (৪৮) নামে একজন নিহত হন। নিহত দীন ইসলাম হাসিমপুর গ্রামের মফিজ উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, হাসিমপুর গ্রামের সরকার বাড়ির সুরুজ মিয়ার পক্ষের সাথে মীর বাড়ির হাসান মীরের পক্ষের এলাকায় আধিপত্য বিস্তারসহ নানা বিষয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। ঈদের পরদিন বৃহস্পতিবার (৬ জুন) বিকালে স্থানীয় মাঠে ছোট ছেলেরা ফুটবল খেলছিল। এ সময় সরকার বাড়ির এক ছেলের ফুটবলে দেয়া শটে কাদা-পানি ছড়িয়ে সেখান দিয়ে যাওয়া মীর বাড়ির এক মহিলার শরীরে গিয়ে পানির ছিটা পড়ে। এতে ওই মহিলা ক্ষিপ্ত হয়ে বিষয়টি বাড়ির লোকজনদের জানান।

এ নিয়ে মীর বাড়ির লোকজনের সাথে সরকার বাড়ির লোকজনের উত্তেজনা তুঙ্গে উঠে। শুক্রবার (৭ জুন) দুই পক্ষ এ নিয়ে মুখোমুখি হলে সালিশ দরবারের ফয়সালার শর্তে সেদিনের মতো তারা ক্ষ্যান্ত দেয়।

কিন্তু শনিবার (৮ জুন) সকালে এ নিয়ে পুনরায় উত্তেজনা দেখা দিলে সাড়ে ৮টার দিকে দু’পক্ষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মুখোমুখি সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষে টেঁটাবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই সুরুজ মিয়ার পক্ষের দীন ইসলামের মৃত্যু হয়।

এছাড়া লিটন মিয়া (৪৮). জাহের মিয়া (৪৫), গিয়াস উদ্দিন (৩৮),  আব্দুল মজিদ (৪০) ও আব্দুছ ছালাম (২৯) সহ উভয় পক্ষে অন্তত ১৫ জন আহত হয়।

মিঠামইন থানার ওসি মো. জাকির রব্বানী জানান, সংঘর্ষে আহতদের মধ্যে আব্দুল মজিদ (৪০) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর