কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কুলিয়ারচরে ১৬টি ডাকাতি মামলার আসামিসহ তিন ডাকাত গ্রেপ্তার


 মুহাম্মদ শাহ্ আলম, স্টাফ রিপোর্টার, কুলিয়ারচর | ১৪ জুন ২০১৯, শুক্রবার, ৮:০৬ | অপরাধ 


কুলিয়ারচর থানা পুলিশের অভিযানে ১৬টি ডাকাতি মামলার আসামি আন্ত:জেলা ডাকাতদলের প্রধান আব্বাস উদ্দিন (৩৫) সহ তিন ডাকাত গ্রেপ্তার হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে কুলিয়ারচর উপজেলার দ্বাড়িয়াকান্দি-ডুমরাকান্দা সড়কের কান্দিগ্রাম ব্রীজের কাছে ডাকাতির প্রস্তুতির সময়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার হওয়া ডাকাতদলের অন্য দুই সদস্য হচ্ছে, ফয়সাল মিয়া (৩০) ও মোশারফ হোসেন (২৫)। তারা সহোদর। গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে রামদাসহ অনেকগুলো দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে আন্ত:জেলা ডাকাতদলের প্রধান আব্বাস উদ্দিন হবিগঞ্জ সদরের রামনগর এলাকার রেশম আলীর ছেলে এবং ফয়সাল মিয়া ও মোশারফ হোসেন একই গ্রামের হুছন আলীর দুই ছেলে।

কুলিয়ারচর থানার এসআই আবুল কালাম আজাদ, আজহারুল হক, আজিজুল হক ও এএসআই শীতল চন্দ্র সহ সঙ্গীয় ফোর্স এই গ্রেপ্তার অভিযান পরিচালনা করেন।

পুলিশ জানায়, আব্বাস উদ্দিন একজন কুখ্যাত ডাকাত। তার বাড়ি হবিগঞ্জের রামনগর গ্রামে হলেও সে নরসিংদী জেলার বেলাবো টেকপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকে। গাজীপুর ও সিলেটসহ বিভিন্ন এলাকার ডাকাতদলের নেতৃত্ব দিয়ে আসছে সে।

সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নরসিংদী ও কিশোরগঞ্জ জেলায় অন্তত ২০০ থেকে ২৫০টি ডাকাতিতে আব্বাস জড়িত ছিল বলে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে।

কুলিয়ারচর থানার এসআই আবুল কালাম আজাদ জানান, সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নরসিংদী ও কিশোরগঞ্জ জেলার বিভিন্ন স্থানে ডাকাতি করাই আব্বাস ডাকাতের কাজ। তার বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় ১৬টি ডাকাতি মামলা রয়েছে। এছাড়া দুই সহোদর ফয়সাল ও মোশারফ তার একান্ত সহযোগী।

এ ব্যাপারে কুলিয়ারচর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও এসআই আবুল কালাম আজাদ জানিয়েছেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর