কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


তাড়াইলে মাদরাসা শিক্ষককে কুপিয়ে জখম, থানায় মামলা


 তাড়াইল সংবাদদাতা | ১৫ জুন ২০১৯, শনিবার, ৬:৩৩ | তাড়াইল  


তাড়াইলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে উপজেলার বানাইল আলিম মাদরাসার ইংরেজি শিক্ষক একেএম গোলাম সারোয়ার বাবলু (৪২) কে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। শনিবার (১৫ জুন) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার বানাইল গ্রামের বাড়ি থেকে মাদরাসা যাওয়ার পথে প্রতিপক্ষের লোকজন হামলা চালিয়ে তাকে কুপিয়ে আহত করে।

স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় মাদরাসা শিক্ষক একেএম গোলাম সারোয়ার বাবলুকে উদ্ধার করে প্রথমে তাড়াইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যাওয়ার পর ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। তিনি বর্তমানে সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

একেএম গোলাম সারোয়ার বাবলু বানাইল গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজ ভূঞার ছেলে। এ ঘটনায় মাদরাসা শিক্ষক একেএম গোলাম সারোয়ার বাবলুর ছোট ভাই মো. আফজাল হোসেন আজম বাদী হয়ে চারজনের নামোল্লেখ ও অজ্ঞাত ৩/৪জনকে আসামি করে তাড়াইল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি ছোটদের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে একই গ্রামের মৃত আব্দুস সাহিদের ছেলে মো. রফিকুল ইসলামের সাথে মাদরাসা শিক্ষক একেএম গোলাম সারোয়ার বাবলুর তর্কবিতর্ক থেকে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

এর জের ধরে শনিবার (১৫ জুন) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বাড়ি থেকে মাদরাসা যাওয়ার পথে মাদরাসা শিক্ষক বাবলুর উপর হামলা চালায় রফিকুল ইসলাম ও তার পরিবারের সদস্যরা। হামলাকারীরা তাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।

এ সময় এলাকাবাসী এগিয়ে গিয়ে মাদরাসা শিক্ষক বাবলুকে উদ্ধার করে তাড়াইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

তাড়াইল থানার ওসি মো. মুজিবুর রহমান জানান, পূর্ব বিরোধের জের ধরে এই হামলার ঘটনাটি ঘটেছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ আসামিদের ধরতে অভিযান পরিচালনা করছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর