কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


চিকিৎসক লাঞ্ছনায় মৌলভীবাজারের এসিল্যান্ডের বিচার দাবিতে কিশোরগঞ্জে মানববন্ধন


 স্টাফ রিপোর্টার | ৪ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৬:৫৫ | বিশেষ সংবাদ 


চলন্ত ট্রেনে ধূমপানে বাধা দেয়ায় প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসককে লাঞ্ছিতকারী মৌলভীবাজার সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুনজিৎ কুমার চন্দের বিচার দাবিতে কিশোরগঞ্জে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) দুপুরে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল প্রাঙ্গণে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) জেলা শাখা এবং কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের যৌথ উদ্যোগে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

জেলা বিএমএ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ডা. মাহবুব ইকবাল এর সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক পরিচালক ডা. দীন মোহাম্মদ, শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডা. সজল কুমার সাহা, প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. আনম নৌশাদ খান, কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. সুলতানা রাজিয়া, কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. হাবিবুর রহমান, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মুজিবুর রহমান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট মিয়া মো. ফেরদৌস, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পিপি শাহ আজিজুল হক, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক কমান্ডার মো. আসাদ উল্লাহ, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাচ্চু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

জেলা বিএমএ সাধারণ সম্পাদক ডা. এম এ ওয়াহাব বাদল এর পরিচালনায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে চিকিৎসক, নার্স এবং জেলার বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাগণ অংশ নেন।

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগের লেকচারার ডা. মো. রাফিউল সিরাজকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় জড়িত মৌলভীবাজার সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুনজিৎ কুমার চন্দের বিচার দাবি করে বলেন, অবিলম্বে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া না হলে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি দেয়া হবে।

মানববন্ধনে নেতৃবৃন্দ জানান, প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগের লেকচারার ডা. মো. রাফিউল সিরাজ গত ২১শে জুন বন্ধুর বিবাহ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনে করে সিলেট যাচ্ছিলেন। পথে হবিগঞ্জ জেলার মনতলা রেলস্টেশনে ট্রেনটি থামার পর মৌলভীবাজার সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুনজিৎ কুমার চন্দ ট্রেনে ধুমপান শুরু করেন।

প্রচণ্ড গরমের মধ্যে সিগারেটের ধোঁয়া এক অসহনীয় পরিবেশ সৃষ্টি করায় ডা. মো. রাফিউল সিরাজ এসিল্যান্ডকে ধুমপান না করার জন্য অনুরোধ জানান। এতে ক্ষেপে গিয়ে এসিল্যান্ড সুনজিৎ কুমার চন্দ পরের স্টেশন শায়েস্তাগঞ্জে পুলিশ ডেকে ট্রেন থেকে টেনেহিঁচড়ে নামিয়ে ডা. রাফিউল সিরাজকে মারধর করা হয়।

এ ঘটনায় গত ২৪শে জুন হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগ করা হলেও এখন পর্যন্ত কোনো প্রতিকার মিলেনি।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর