কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে অন্যরকম মানবিক আয়োজনে দুস্থদের মধ্যে কোরবানি গোস্ত বিতরণ


 স্টাফ রিপোর্টার | ১৩ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:২৪ | বিশেষ সংবাদ 


মঙ্গলবার (১৩ আগস্ট) কিশোরগঞ্জের বিয়াম ল্যবরেটরি স্কুল মাঠে আল-খায়ের ফাউন্ডেশন ও সমকাল সুহৃদ সমাবেশের যৌথ ব্যবস্থাপনায় ঈদুল আযহাকে কেন্দ্র করে দুস্থ ও দরিদ্র মানুষের মধ্যে কোরবানির গোস্ত বিতরণের এক চমৎকার অনুষ্ঠানের আয়োজন সমাপ্ত হয়েছে।

ভোরে চারটি ষাঁড় গরু কোরবানি দিয়ে সুবিধাবঞ্চিত ও অতিদরিদ্র দেড় শতাধিক পশ্চাৎপদ নারী-পুরুষের মধ্যে সোয়া দুই কেজি করে মাংস প্রদান করা হয়।

এবারের ঈদুল আযহার ঈদে কোরবানির মাংস খেয়ে আনন্দ ভাগাভাগি করে নেয়ার এক অন্যরকম আনন্দঘন অনুষ্ঠানে আগত দরিদ্র নারী-পুরুষের পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে বিয়াম স্কুল প্রাঙ্গণ।

বিতরণ অনুষ্ঠানের আগে সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ারের প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে নিরবতা পালনের মধ্য দিয়ে গোস্ত বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়। পরে প্রয়াত সম্পাদক সাংবাদিকতার বাতিঘরখ্যাত গোলাম সারওয়ারের জন্য আগত দরিদ্র ও দুস্থদের নিয়ে বিশেষ মোনাজাত করে তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করা হয়।

কিশোরগঞ্জ সমকালের স্টাফ রিপোর্টার সাইফুল হক মোল্লা দুলুর সভাপতিত্বে ‘কোরবানি মাংস বিতরণ’ শীর্ষক এই আনন্দঘন আয়োজনে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যথাক্রমে জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার), ছড়াকার সংসদের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম জাহান, সৈয়দ রেজওয়ানউল্লাহ বাশার প্রমুখ।

সুহৃদ সভাপতি হারুন-আল-রশীদ তার উপস্থাপনা বক্তব্যে বলেন, সমকাল সব-সময় সাধারণ মানুষের পাশে থেকে আর্ত-মানবতার সেবায় কাজ করতে আগ্রহী। তারই ধারাবাহিকাতায় আজকের এই মহতী ও মানবিক উদ্যোগে সমকালও অংশীদার হয়েছে। তিনি আল-খায়ের ফাউন্ডেশনকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে কিশোরগঞ্জে এই ধারা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ঈদ সামগ্রীপ্রাপ্ত হোসেনপুর উপজেলার ধনকুঁড়া গ্রামের শাহেদ মিয়া (৪৫)সহ দুস্থরা তাদের প্রতিক্রিয়ায় বলেন, অভাবে থাইক্যা থাইক্যা কোরবানি কারে কয় হেইডা ভুইল্লা গেছিলাম। আইজ নিজের হাতে গরু জবাই দিয়া গোস্ত পাইয়্যা ঈদের খুশি টের পাইতাছি। যারা এইতা দিছে আল্লা হেরার ভালা করুক।

সদর উপজেলার চং শোলাকিয়া সুরুজ মিয়া (৫৩), জসিম উদ্দিন ও জোড়াপুকুর পাড়ের নূরজাহান (৪২), সহ গোস্তপ্রাপ্ত একাধিক নারী-পুরুষ তাদের আনন্দ-উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে জানান, ম্যালাদিন পরে আইজ মনে অইতাছে আমরারও কোরবানির ঈদ আছে। এইবার পোলাপাইন লইয়া গরুর গোস্ত  খাইতে পারবাম।

জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন, ইসলাম মানবতার কথা বলে। প্রতিবেশীকে অভুক্ত রেখে নিজে ভালো খাওয়ার শিক্ষা ইসলামে নেই। সুহৃদ এবং আল-খায়ের ফাউন্ডেশন ইসলামের সেই স্পিরিট নিয়ে পবিত্র ঈদুল আযহায়  দরিদ্র নারী-পুরুষের মধ্যে ঈদের আনন্দ বিলিয়ে দেওয়ার জন্য আজ কোরবানির গোস্ত দেওয়ার যে উদ্যোগটি বাস্তবায়ন করলো তা অবশ্যই অভিনন্দনযোগ্য। তাদের সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই।

পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) বলেন, আমি আনন্দিত ও অভিভূত এমন একটি ভালো কাজ বাস্তবায়নের জন্য। নিজ চোখে সত্যিকার দুস্থদের আনন্দ দেখে সত্যি খুশী হয়েছি। ব্যতিক্রমধর্মী এমন একটি ভালো ও সুন্দর কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য তিনি সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

এ সময় তিনি বলেন, দৈনিক সমকাল ও আল-খায়ের ফাউন্ডেশন কোরবানি দিয়ে সেই মাংস দুস্থদের মধ্যে দায়িত্বশীলতার সাথে বিতরণ করে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলো।

ছড়াকার জাহাঙ্গীর আলম জাহান বলেন, গরীব ক্ষতিগ্রস্ত মানুষেরা অনেকেই কোরবানি দিতে পারেননি। তাই সমকাল সুহৃদ ও আল-খায়ের ফাউন্ডেশন হাওরবাসীদের মধ্যে সোমবার (১২ আগস্ট) হাওরের মিঠামইন উপজেলায় ৮টি গরু কোরবানি দিয়ে ৫০০ শতাধিক মানুষের মাঝে কোরবানি গোস্ত বিতরণ করেছেন। আজ চারটি গরু কোরবানি করে দেড়‘শ মানুষকে গোস্ত দেওয়া হলো। আল খায়ের ফাউন্ডেশন ও সমকাল সুহৃদের এই মানবিক আবেদন সব-সময় অব্যাহত থাকায় আমি ব্যক্তিগতভাবে আনন্দিত ও কৃতার্থ।

বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক আলম সারোয়ার টিটু, সাইফুল মালেক চৌধুরী, আসলামুল হক আসলাম, কিশোরগঞ্জ সুহৃদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমাস সাঈদ, সদস্য ওমর ফারুক, আদিব, মামুন, শাহীন, অলিক, একরাম, রিয়া প্রমুখ।

উল্লেখ্য সোমবার (১২ আগস্ট) হাওরের মিঠামইন উপজেলায় আল খায়ের ফাউন্ডেশন ও সমকাল সুহৃদের উদ্যোগে ৮টি গরু কোরবানি দিয়ে পাঁচ শতাধিক দরিদ্র নারী-পুরুষের মধ্যে পৃথক পৃথক ব্যাগে কোরবানির মাংস বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রপতির পুত্র রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আছিয়া আলম, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জাকির রাব্বানীসহ এলাকার গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ।

দরিদ্র ও দুস্থ মানুষ কোরবানির মাংস পেয়ে এক অনাবিল ঈদ আনন্দ নিয়ে সবাই ফিরে যান যার যার ঘরে।

এ সময় রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এমপি বলেন, আল খায়ের ফাউন্ডেশন ও সমকাল সুহৃদ হাওরের দরিদ্র জনগোষ্ঠির কথা সব-সময় মনে রাখে। তাদের জন্য সত্যিকার অর্থেই তারা কিছু না কিছু করে আসছে। সেইজন্য হাওরবাসী তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। হাওরের জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমি তাদের এই মানবিক কর্মসূচির পরিধি আরও বাড়িয়ে বেগমান করবে বলে আশা করি।

হাওরে কোরবানির গোস্ত বিতরণ অনুষ্ঠানে আল খায়ের ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি ম্যানেজার তারেক মাহমুদ সজীব বলেন,  আল- খায়ের ফাউন্ডেশন মানবিক আবেদনে সব-সময় দরিদ্র জনগণের পাশে থাকে। ভবিষ্যতে আল-খায়ের ফাউন্ডেশন কিশোরগঞ্জে কাজের পরিধি আরও বৃদ্ধি করবে বলে সবাইকে আশ্বস্ত করেন।

তিনি আরও বলেন, প্রকৃত দুস্থদের মুখে হাসি দেখে সত্যি ভাল লাগছে। সমকাল সুহৃদকে নিয়ে আগামীতে কিশোরগঞ্জ জেলার হাওর অঞ্চলসহ গ্রামীণ পর্যায়ে মানবিক কাজ করে দেশের তৃণমূল জনগোষ্টিকে এগিয়ে নিয়ে যাবার পাশাপাশি আজকের তরুণ-তরুণীদের মানবিক সচেতনেতা ও মূল্যবোধকে জাগ্রত করাই আমাদের মূল লক্ষ্য।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর