কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


গৌরিপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের চারজন নিহত, আহত দুই


 স্টাফ রিপোর্টার | ১৬ আগস্ট ২০১৯, শুক্রবার, ১:১০ | ময়মনসিংহ-নেত্রকোনা 


ময়মনসিংহের গৌরিপুরে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় প্রাইভেটকার উল্টে ও দুমড়ে-মুচড়ে গিয়ে একই পরিবারের চারজন নিহত হয়েছেন। এছাড়া এ ঘটনায় এক শিশু ও এক নারীসহ আরো দুইজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১৬ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ সড়কে গৌরিপুর উপজেলার গাওরামগোপালপুর এলাকায় মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

গৌরিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ময়মনসিংহ থেকে এমকে সুপার পরিবহনের একটি বাস যাত্রী নিয়ে কিশোরগঞ্জ যাচ্ছিল। অন্যদিকে একটি প্রাইভেটকারও কিশোরগঞ্জের দিকে যাচ্ছিল।

গাওরামগোপালপুর এলাকায় পৌঁছে বাসটিকে প্রাইভেটকারটি ওভারটেক করতে যায়। এ সময় বাসের ধাক্কায় প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। পরে দুর্ঘটনাস্থলের পাশের খাদ থেকে প্রাইভেটকারের এক নারী যাত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করেন ঈশ্বরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

এ সময় প্রাইভেটকার থেকে এক শিশুসহ পাঁচজনকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতাল পাঠানো হয়। সেখানে নিয়ে যাওয়ার পর তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

নিহতরা হলেন, রফিকুজ্জামান, তার স্ত্রী নাজমুন্নাহার, ছেলে নাদিম ও মেয়ে রনক। এছাড়া নিহত রফিকুজ্জামানের তিন বছর বয়সী শিশুপুত্র নাহিদও গুরুতর আহত হয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এছাড়া আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসা চলছে শাহীনা আক্তার (৪০) নামে এক নারীর।

তাদের বাড়ি নেত্রকোনার দূর্গাপুর উপজেলার চন্ডিগর গ্রামে। তারা এক আত্মীয়ের বিয়েতে অংশ নিতে প্রাইভেটকারযোগে নরসিংদী যাচ্ছিলেন।

ঈশ্বরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মাহফুজুর রহমান বলেন, ওভারটেকিং করতে গিয়ে দুর্ঘটনাটি ঘটে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ঘটনাস্থলে এক নারী, হাসপাতালে এক নারী ও দুই পুরুষসহ চারজনের মৃত্যু হয়েছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর