কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


হাইকোর্ট থেকে জামিন পেলেন মিন্নি


 স্টাফ রিপোর্টার | ২৯ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ২:৪২ | সারাদেশ 


বরগুনার আলোচিত রিফাত হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী থেকে আসামি হয়ে কারাগারে থাকা স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে দুই শর্তে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। শর্ত দু’টি হচ্ছে, মিন্নি গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে পারবেন না এবং তাকে তার বাবার জিম্মায় থাকতে হবে।  বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) দুপুরে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। জামিনে থাকা অবস্থায় মিন্নি গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বললে তার জামিন বাতিল হবে বলেও আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে। মিন্নির জামিন প্রশ্নে রুলের শুনানি শেষে এসব আদেশ দেয়া হয়েছে।

এর আগে বুধবার (২৮ আগস্ট) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ রায়ের জন্য দিন ধার্য করেন হাইকোর্ট। আদালতে মিন্নির পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী জেড আই খান পান্না এবং রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সরোয়ার হোসাইন বাপ্পী। হাইকোর্টের আদেশ অনুযায়ী মিন্নির মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বরগুনা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. হুমায়ুন কবির যাবতীয় নথিপত্রসহ আদালতে হাজির হন। একইসঙ্গে বরগুনার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন সংবাদ সম্মেলনে রিফাতের স্ত্রীর দোষ স্বীকারের বিষয়ে লিখিত ব্যাখ্যা দেন।

শুনানিতে আইনজীবী জেড আই খান পান্না আদালতকে বলেন, আয়শা ১৯ বছর বয়সী একটা মেয়ে। তার স্বামী এ ঘটনায় মারা গেছেন। তার পালানোর কোনো সুযোগ নেই। যে কোনো শর্তে আমরা শুধু তার জামিন চাই। প্রয়োজনে আমি নিজে গ্রেন্টার হব। এরপর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির আদালতকে জানান, মামলার তদন্ত প্রায় শেষ পর্যায়ে। আদালত নয়ন বন্ডের ক্রশফায়ার সম্পর্কে জানতে চান। তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, আমরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নয়ন বন্ডকে ধরতে অভিযান চালাই। এ সময় তারা আমাদেরকে পাল্টা আক্রমণ করে। আমরা আত্মরক্ষার্থে গুলি চালাই। তখন আদালত ঘটনার তারিখ জানতে চান। তদন্ত কর্মকর্তা ঘটনার নথি সাবমিট করেন। এরপর রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সরোয়ার হোসাইন জামিনের বিরোধিতা করে বলেন, তিনি (মিন্নি) ঘটনার পরিকল্পনাকারী। এখনো মামলার অভিযোগপত্র জমা দেয়া হয়নি। এছাড়া, তিনি (মিন্নি) রিফাত হত্যার আগে ৮ বার ও হত্যার পর আরো ৫ বার নয়ন বন্ডের টেলিফোনে কথা হয়। ন্যায়বিচারের স্বার্থে তাকে যেন জামিন দেওয়া না হয়। এরপর মিন্নির আইনজীবী আদালতকে বলেন, মিন্নি কিন্তু নয়নবন্ডকে ফোন করে নি। এগুলো ছিল ইনকামিং কল। তাছাড়া, ক্রসফায়ারের আগে পুলিশের সঙ্গেওতো নয়ন বন্ডের টেলিফোনে ৭৭ বার কথা হয়েছে। রাষ্ট্রপক্ষতো সে বিষয়ে কোনো প্রশ্ন তুলছেন না।

গত ২০শে আগস্ট কারাগারে থাকা নিহতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে কেন জামিন দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। ওই দিন সরকারের সংশ্লিষ্টদেরকে সাতদিনের মধ্যে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়। গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে রিফাত শরীফকে। তার স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি হামলাকারীদের সঙ্গে লড়াই করেও তাদের দমাতে পারেননি। গুরুতর আহত রিফাতকে ওইদিন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ ও পাঁচ-ছয় জনকে অজ্ঞাত আসামি করে বরগুনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় প্রথমে মিন্নিকে সাক্ষী হিসেবে দেখানো হয়। পরে ১৬ জুলাই সকাল পৌনে ১০টার দিকে মিন্নিকে তার বাবার বাড়ি বরগুনা পৌর শহরের নয়াকাটা-মাইঠা এলাকা থেকে পুলিশ লাইনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে আসা হয়। এরপর দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাত ৯টায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

পরদিন (১৭ জুলাই) মিন্নিকে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হলে বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড শেষ হওয়ার আগেই মিন্নি ১৬৪ ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। বরগুনার আদালতে মিন্নির জামিন আবেদন জানালেও তার জামিন মেলেনি। নিম্ন আদালতে ব্যর্থ হয়ে হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন মিন্নির আইনজীবীরা। গত ৮ই আগস্ট বিচারপতি শেখ মো. জাকির হোসেন ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ মিন্নির জামিন আবেদন ফেরত দেন। হাইকোর্ট জামিন না দিয়ে রুল জারির ইচ্ছা প্রকাশ করলে মিন্নির আইনজীবীরা জামিন আবেদন ফেরত নেন। পরে ১৮ আগস্ট মিন্নির জামিন চেয়ে অন্য একটি বেঞ্চে আবেদন দাখিল করেন তার আইনজীবী।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর