কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


নানার বাড়ি যাওয়া হলো না ছোট্ট ফাতেমার


 স্টাফ রিপোর্টার | ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৮:২১ | পাকুন্দিয়া  


কয়েকদিন ধরেই নানার বাড়ি যাওয়ার জন্য বায়না ধরছিল চার বছরের ছোট্ট শিশু ফাতেমা। মেয়ের আবদার রাখতে অটোরিকশাচালক বাবা কামাল মিয়া শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকালে পাকুন্দিয়া উপজেলার চণ্ডিপাশা চরপাড়া গ্রামের বাড়ি থেকে স্ত্রী হাওয়া বেগম আর ছোট দুই সন্তানকে তার অটোরিকশায় করে নিয়ে রওনা হন পাকুন্দিয়া উপজেলার কোষাকান্দা গ্রামে শিশুটির নানার বাড়ির উদ্দেশ্যে। কিন্তু বিধিবাম!

কোষাকান্দা গ্রামের কাছাকাছি পৌঁছানোর পর পরই শুরু হয় বৃষ্টি। বৃষ্টির কারণে অটোরিকশা থেকে নেমে গ্রামের পাশের একটি দোকানে দুই শিশুসন্তানকে নিয়ে আশ্রয় নেন হাওয়া বেগম। বাবা কামাল মিয়া চলে যান অটোরিকশা নিয়ে।

বৃষ্টি কিছুটা থামলে দোকান থেকে বের হয়ে রাস্তা পারাপারের সময় ঘটে চরম দুর্ঘটনাটি। কিশোরগঞ্জ থেকে পাকুন্দিয়াগামী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা বেপরোয়া গতিতে চাপা দেয় রাস্তা পার হতে যাওয়া ছোট্ট শিশু ফাতেমাকে। এতে মাথা থেতলে গিয়ে গুরুতর আহত হয় ফাতেমা।

দ্রুত উদ্ধার করে পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন। নানার বাড়ির কাছে গিয়েও সেখানে আর যাওয়া হলো না ছোট্ট ফাতেমার। সবাইকে কাঁদিয়ে সে সে চলে গেছে না ফেরার দেশে।

শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৫টার দিকে ঘটে এই মর্মান্তিক ঘটনাটি। শিশু ফাতেমা পাকুন্দিয়া উপজেলার চণ্ডিপাশা চরপাড়ার কামাল মিয়ার মেয়ে। এ ঘটনায় পরিবারটিতে শোকের ছায়া নেমে আসে। মা হাওয়া বেগম ও স্বজনদের কান্না আর আহাজারি থামছে না।

এদিকে দুর্ঘটনার পর সিএনজিচালিত অটোরিকশাটি স্থানীয়দের সহায়তায় পুলিশ আটক করলেও চালক পালিয়ে যায়।

পাকুন্দিয়া থানার এসআই মদন চন্দ্র সাহা জানান, কোষাকান্দা গ্রামের সিরাজ উদ্দিন শিশুটির নানা। নানাবাড়িতে যাওয়ার জন্য শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকালে শিশুটির বাবা অটোরিকশাচালক কামাল মিয়া তাদের কোষাকান্দা গ্রামের সামনের সড়কে নামিয়ে দিয়ে যায়। বৃষ্টির কারণে তারা একটি দোকানে আশ্রয় নিয়ে অপেক্ষা করে।

বিকাল ৫টার দিকে বৃষ্টি কিছুটা থামলে কোলের এক শিশু ও ছোট্ট শিশু ফাতেমাকে নিয়ে মা হাওয়া বেগম রাস্তা পারাপার হচ্ছিলেন। এ সময় একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা শিশু ফাতেমাকে চাপা দিলে মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

পাকুন্দিয়া থানার ওসি মো. মফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর