কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ভোগপাড়া থেকে মধ্যপাড়া পর্যন্ত দুর্ঘটনাপ্রবণ এলাকা ঘোষণা দাবি


 মো. রফিকুল হায়দার টিটু, স্টাফ রিপোর্টার, কটিয়াদী | ৩ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৫:৪৭ | কটিয়াদী 


ভৈরব-কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়ক এখন একটি মৃত্যুকূপে পরিণত হয়েছে। প্রতিদিনই ঘটছে দুর্ঘটনা। অকালে ঝরে যাচ্ছে তাজা প্রাণ। গত ১০ দিনে ৭ জন প্রাণ হারিয়েছেন। প্রায় অর্ধশত লোক পঙ্গুত্ব বরণ করেছেন।

চলমান এ সড়ক দুর্ঘটনার প্রতিবাদে ‘সড়ক কোন মৃত্যুপুরী নয়; আমরা বাঁচতে চাই’ এই স্লোগানে ১২ দফা দাবিতে সামাজিক সংগঠন ‘কটিয়াদী রক্তদান সমিতি’ বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) কটিয়াদী বাসস্ট্যান্ডে এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও সমন্বয়ক বদরুল আলম নাঈমের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সহ-তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক তানিয়া সুলতানা হ্যাপী, কটিয়াদী সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, মুন্সী আব্দুল হেকিম কারিগরি কলেজের অধ্যক্ষ ফজলুল হক জোয়ারদার আলমগীর, সাংবাদিক সারোয়ার হোসেন শাহিন, রফিকুল হায়দার টিটু, কবি সাইদ উজ্জ্বল, হাইওয়ে পুলিশ কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম, চলচ্চিত্রকর্মী জিসান আজাদ, সমাজকর্মী আব্দুল্লাহ আল ফাহাদ, খায়রুল ইসলাম বকুল, আরিফুল ইসলাম উজ্জ্বল, মকবুল হোসেন, সারোয়ার আহমেদ হৃদয়।

কটিয়াদী রক্তদান সমিতির সদস্যসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়াকর্মী, সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক নেতৃবৃন্দ ও সর্বস্তরের জনগণ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।

মানববন্ধনে ভোগপাড়া থেকে মধ্যপাড়া এই ১০ কিলোমিটার রাস্তাকে দুর্ঘটনাপ্রবণ এলাকা ঘোষণা করে গতি সীমা সর্বোচ্চ ৪০ কিলোমিটার নির্ধারণ ও ওভারটেকিং নিষিদ্ধের দাবি জানান বক্তারা।

এছাড়া বক্তারা ফিটনেসবিহীন গাড়ি চলাচলে নিষেধাজ্ঞা, প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চালকের বৈধ লাইসেন্স নিশ্চিত, অনুপযুক্ত চালক ছাঁটাই, প্রয়োজনীয় স্থানে সড়ক চিহ্ন স্থাপন, গুরুত্বপূর্ণ স্থানে গতিরোধকসহ জেব্রাক্রসিং স্থাপন, যত্রতত্র পার্কিং নিষিদ্ধ, নির্দিষ্ট স্থানে পার্কিং এর ব্যবস্থা, টমটম, নছিমন, ভটভটি, রিকশা, সিএনজি অটোরিকশা চলাচলে নিয়ন্ত্রণ, ওয়াক ওয়ের জন্য পর্যপ্ত জায়গার ব্যবস্থা, সড়ক আইনের প্রয়োগ নিশ্চিত করা, জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ ও সড়ক নির্মাণে ত্রুটি রয়েছে কি না তা বিশেষজ্ঞ টিমের মাধ্যমে নিরীক্ষণসহ রোড ম্যানেজম্যান্ট করার দাবি তুলে ধরেন।

পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত জাহান কেয়ার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর