কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


একাত্তরের পরাজিত শক্তির কোন সদস্য যেন দলে স্থান না পায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে


 বিশেষ প্রতিনিধি | ৪ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৬:৩১ | বিশেষ সংবাদ 


শোককে শক্তিতে পরিণত করে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে হবে। অনিয়ম-দুর্নীতিবাজদের দলে প্রশ্রয় না দিয়ে সৎ ও আদর্শবান নেতা-কর্মীদের নিয়ে একযোগে কাজ করতে হবে। একাত্তরের পরাজিত শক্তির কোন সদস্য যেন দলে স্থান না পায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। কারণ রক্তাক্ত ১৫ আগস্ট ও  জেলহত্যা দিবস একই সুত্রে গাঁথা। একাত্তরের পরাজিত শক্তি আজও সক্রিয়।

সোমবার (৪ নভেম্বর) জেল হত্যা দিবস ও শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলামের ৪৪তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ আয়োজিত বিশাল শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রয়াত জাতীয় নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলামের বড় মেয়ে ও প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ছোট বোন কিশোরগঞ্জ-১ (কিশোরগঞ্জ সদর-হোসেনপুর) আসনের সংসদ সদস্য ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি এসব কথা বলেন।

কলেজের অধ্যক্ষ ডা. সজল কুমার সাহার সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. সাইফুর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল কাদির মিয়া, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট কামরুল আহসান শাহজাহান, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এম এ আফজল, বিএমএ জেলা সভাপতি ডা. মাহবুব ইকবাল, সাধারণ সম্পাদক ডা. আবদুল ওয়াহাব বাদল, কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সুলতানা রাজিয়া প্রমুখ।

ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি এমপি পঁচাত্তরের পরবর্তী দুঃসময়ের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে আবগ-আপ্লুত হয়ে পড়েন। ‘৭৫ এর ১৫ আগস্টের পর তার মা নাফিজা ইসলাম কত কষ্ট করে সন্তানদের বড় করেছেন, লেখা-পড়া শিখিয়েছেন বক্তব্যে এসব কথা ওঠে এলে সামনে বসে থাকা প্রতিটি মানুষের হৃদয়কে নাড়া দেয়।

আলোচনা সভার প্রারম্ভে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ ১৫ আগস্টে নিহত সকল স্বজন ও জেল হত্যাকান্ডে নিহত জাতীয় চারনেতার আত্মার মাগফেরাত কামানায় এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর