কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান স্পোর্টিং এর অধিনায়ক কিশোরগঞ্জের কৃতী সন্তান হিমেল


 স্টাফ রিপোর্টার | ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১০:৫৮ | সম্পাদকের বাছাই  


ঢাকার ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের অধিনায়কের দায়িত্ব পেয়েছেন কিশোরগঞ্জের কৃতী সন্তান দেশসেরা গোলরক্ষক মাজহারুল ইসলাম হিমেল। এই মৌসুমে প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলে হিমেলের নেতৃত্বে খেলবে ঐতিহ্যবাহী এই স্পোর্টিং ক্লাবটি। হিমেল এর আগে ২০০৭ সালে মোহামেডানের গোলরক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

হিমেল মোহামেডান ছাড়াও ঐতিহ্যবাহী আবাহনী, শেখ জামাল ধানমণ্ডি এবং সর্বশেষ আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের জার্সি গায়ে মাতিয়েছেন ক্লাব ফুটবল। তাঁর হাতের জাদুতে একের পর শিরোপা ওঠেছে দলগুলোর হাতে।

পাঁচ ফুট ১০ ইঞ্চি উচ্চতার মাজহারুল ইসলাম হিমেল ১৯৮৮ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর কিশোরগঞ্জ শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা প্রয়াত রাজনীতিক অ্যাডভোকেট জিন্নাতুল ইসলাম ছিলেন একজন প্রখ্যাত ক্রীড়া সংগঠক। তিন ভাই ও তিন বোনের মধ্যে হিমেল চতুর্থ।

বাবার অনুপ্রেরণায় ছোটবেলাতে ফুটবলের প্রেমে পড়েন হিমেল। ফলে কিশোরগঞ্জ শহরের ঐতিহ্যবাহী আজিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র থাকাবস্থায় ফুটবল জীবনের পদচারণা শুরু হয় হিমেলের। আজিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের ফুটবল টিমের গোলরক্ষক হিসেবে হিমেলের দায়িত্ব পালনকালে আজিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় কিশোরগঞ্জ, ময়মনসিংহ এবং ঢাকা বিভাগীয় স্কুল ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হয়।

পরবর্তীতে কিশোরগঞ্জ জেলা টিমের হয়ে ময়মনসিংহের ভালুকাতে এক অনবদ্য ও দুর্দান্ত খেলার মাধ্যমে একা হিমেল টাইব্রেকার এর মাধ্যমে কিশোরগঞ্জ জেলা ফুটবল দলের জয় এনে দেন। সেই খেলায় হিমেলের ক্রীড়া নৈপূণ্য দেখে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের কোচের নজরে পড়েন হিমেল।

আজন্ম ফুটবল প্রেমই আজ তাকে দেশসেরা গোলরক্ষক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। অনূর্ধ-১৪, অনূর্ধ-১৭, অনূর্ধ-১৯ ও অনূর্ধ-২৩ জাতীয় ফুটবল দলে তার ধারাবাহিক নৈপূণ্য নজর কাড়ে ফুটবলবোদ্ধাদের। ফলশ্রুতিতে ২০০৬ সালে ডাক পান বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলে।

অনূর্ধ-১৭ বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলে খেলার সময় প্রথমে বাড্ডা জাগরণী ও পরে ধানমণ্ডি ক্লাবে নাম লেখান হিমেল। হিমেলের নজরকাড়া নৈপূণ্য সৌরভ ছড়ায় ঢাকার ক্লাব ফুটবলে। পরবর্তীতে ধানমণ্ডি ক্লাব থেকে সরাসরি মোহামেডান ক্লাবে যোগদান করেন।

ওই বছরই মোহামেডান ক্লাব ঢাকা জাতীয় ফুটবল লীগে শিরোপা অর্জন করে চ্যাম্পিয়ন হয়। পরবর্তীতে আবাহনী হয়ে শেখ জামাল এবং সর্বশেষ আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের গোলরক্ষক হিসেবে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর