কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


‘সোনার ছেলে’ আরিফুল


 স্টাফ রিপোর্টার | ১২ মার্চ ২০১৮, সোমবার, ৫:৫৭ | খেলাধুলা 


ঢাকা বিভাগের হয়ে যুব গেমস সাঁতারে পুলে ঝড় তুলেছেন নিকলীর তরুণ সাঁতারু আরিফুল ইসলাম। পাঁচটি ইভেন্টে অংশ নিয়ে পাঁচটিতেই স্বর্ণপদক জিতে নিয়েছেন এই সাঁতারু।

রোববার বাংলাদেশ যুব গেমসের সাঁতার ডিসিপ্লিনে আরিফুলের হাত ধরে তিনটি সোনা আসে ঢাকা বিভাগের। সৈয়দ নজরুল ইসলাম জাতীয় সুইমিং কমপ্লেক্সে ৫০ মিটার ফ্রি স্টাইল, ৫০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোক ও ১০০ মিটার ফ্রি স্টাইলে প্রথম হন আরিফুল।

এর মধ্যে ৫০ মিটার ফ্রি স্টাইলে ২৫.২২ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ জেতেন আরিফুল ইসলাম। আরিফুলের প্রিয় ইভেন্ট ৫০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে স্বর্ণ জিতে নেয়ার পথে সময় ব্যয় করেছেন ৩১.৩৭ সেকেন্ড। এছাড়া ১০০ মিটার ফ্রি স্টাইলে মাত্র ৫৫.৭১ সেকেন্ডে স্বর্ণ জিতে নেন তিনি।

রোববারের মতো সোমবারও দাপট দেখিয়েছেন আরিফুল। রোববারের তিনটির পর সোমবার আরিফুলের হাত ধরে আরো দু’টি সোনা আসে ঢাকা বিভাগের। আজ ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোক এবং ২০০ মিটার ফ্রি স্টাইলে প্রথম হয়েছেন আরিফুল। এর মধ্যে তিনি ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে ১.০৮ মিনিট এবং ২০০ মিটার ফ্রি স্টাইলে ২.১২ মিনিট সময় নিয়েছেন।

সাঁতারু আরিফুল জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বেশ ক’বছর ধরেই নিজেকে মেলে ধরছেন। আসছে কমনওয়েলথ গেমসে অংশ নেবেন এই সাঁতারু। পাঁচটি ইভেন্টে স্বর্ণ জিতে উচ্ছ্বসিত আরিফুলের ভাবনাতেও তাই কমনওয়েলথ গেমসে ভাল করার তাগিদ।

আরিফুল বলেন, স্বর্ণপদক জিতে অবশ্যই ভালো লাগছে। তবে খুব বেশি খুশি হওয়ার কিছু নেই। কারণ এই আসরকে আমি কমনওয়েলথ গেমসের প্র্রস্তুতি হিসেবে নিয়েছি। ওখানে ভালো কিছু করে দেখাতে চাই। আর এই আসরে স্বর্ণ জয়ের ব্যাপারে আমি আশাবাদী ছিলাম।

২০১৩-তে ১৩টি সোনা, ২০১৪-তে ১৩ সোনার সঙ্গেই তিনটি নতুন রেকর্ড, ২০১৫-তে সোনা ১২টি—সেবার নতুন জাতীয় রেকর্ড ৯টি। বয়স ১৯ না পেরোতেই সাঁতারপুলে ঝড় তোলা কিশোরগঞ্জের সুবিখ্যাত নিকলি থেকে উঠে আসা এই সাঁতারু কারার মিজান, সামেদুলের মতো একদিন দক্ষিণ এশিয়ারও সেরা হবেন কি না, তা সময়ই বলে দেবে। তবে আরিফুল এগোচ্ছেন দারুণ গতিতে।

২০১২ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত জাতীয় জুনিয়র সাঁতারে টানা চারবারের সেরা সাঁতারু তিনি। ২০১৬ সালের জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে লড়েছেন সিনিয়রদের সঙ্গে। ওই আসরে ৫০ মিটার ব্রেস্ট স্ট্রোকে  সোনা জিতেন আরিফুল।

শুধু ঘরোয়া আসরের পারফরম্যান্সেই আসলে ১৮ বছর বয়সী এই সাঁতারুকে আগামীর সম্ভাবনাময় হিসেবে ধরা হচ্ছে না। এরই মধ্যে প্রতিভার দ্যুতি ছড়িয়েছেন তিনি আন্তর্জাতিক পর্যায়েও।

২০১৪-তে বিকেএসপির হয়ে নেপালে স্কুল সাঁতারে অংশ নিয়ে জেতেন ৬টি সোনা। ওই বছরই কাতারে গিয়েছিলেন ফিনার একটি যুব প্রগ্রামে অংশ নিতে। ৬৪টি দেশের ১৮ বছরের কম বয়সের সাঁতারুদের মধ্যে ওই আসরেও জেতেন একটি সোনা। চমক দেখান তিনি ২০১৬ সালে শ্রীলঙ্কায় হওয়া দক্ষিণ এশিয়া বয়সভিত্তিক সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপে। সেই আসরে এসএ গেমসের জোড়া সোনাজয়ী মাহফুজা আক্তারও অংশ নিয়েছিলেন। কিন্তু একাই সবটুকু আলো কেড়ে নেন আরিফুল, প্রিয় ইভেন্ট ৫০ ও ১০০ মিটার ব্রেস্ট স্ট্রোকে সেখানে তাঁর জোড়া সোনা।

নিকলি হাওরের উথালপাতাল পানির স্রোতকে হার মানিয়ে নতুন স্বপ্নের পথে দুর্বার গতিতে ছুটে চলেছেন আরিফুল। ‘সোনার ছেলে’ আরিফুলের লক্ষ্য এখন তাই সেরাদের সেরা হওয়ার।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর