কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


বহু গুণে গুণান্বিত ডাঃ ইউসুফ মুতাহার


 উবায়দুল্লাহ রুমি | ২ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১:১৯ | রকমারি 


ইউসুফ মুতাহার পেশায় একজন চিকিৎসক হলেও মডেল ও অভিনেতা হিসেবে সারা পৃথিবীতে স্বমহিমায় আলো ছড়িয়ে যাচ্ছেন। বিশ্বের যে কয়কজন গুণি ডাক্তার আছেন এর মধ্যে ডাঃ ইউসুফ মুতাহারের নাম সংযুক্ত করা যেতে পারে। পাশাপাশি অভিনয় ও মডেল হিসেবে ইতোমধ্যে সকলের মন জয় করতে সক্ষম হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার ২৯ বছর বয়সি ডাঃ ইউসুফ মুতাহার চিকিৎসা পেশা ছাড়াও সংগীত ও খেলাধুলায় আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে গুণের দ্যুতি ছড়িয়েছে ইতোমধ্যে।

তাই তিনি একাধারে একজন ডাক্তার, একজন খ্যাতিমান মডেল, গায়ক, লেখক ও খেলোয়াড় হিসেবে সকলের মাঝে পরিচিতি পেয়েছেন। তার এই গুণ বিশ্ববাসীর জন্যে অনুপ্রেরণামূলক।

জীবনের প্রথম তিনি মডেলিং দিয়ে স্বপ্নের অভিনয়ের সূচনা করেছিলেন। কর্মযাত্রায় তিনি ২৩ বছর বয়সে মডেল হিসেবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করেন।

তিনি গুচি (Gucci), চ্যাম্পিয়ন (Champion), ক্যালভিন ক্লেইন (Calvin Klein) এবং র‌্যার্লফ লরেন (Ralph Lauren) সহ বিশ্বের শীর্ষ ব্র্যান্ডের প্রচারে অংশ নেন।

তার মডেলিং ক্যারিয়ার তাকে বিশ্বব্যাপী শিল্পগুলিতে ভূমিকা নিতে সহায়তা করেছিল। ২০১৯ সালে তিনি দুটি বিদেশী সিনেমাতে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন।

মুতাহারের পরবর্তী লক্ষ্য হল ফিল্মের মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক করা। নিজের দক্ষতাকে প্রকাশের জন্য ২০১৯ সালের নভেম্বরে একটি মিউজিক অ্যালবামও প্রকাশ করেন।

মডেলিং ও অভিনয় ছাড়াও অনেকেই জানেন না যে মুতাহার জুডো খেলার চ্যম্পিয়ন। তিনি অনেক পুরষ্কার জিতেছেন এবং ২০১৮ সালে তিনি জুডো খেলায় অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধিত্ব করেছেন।

ইউসুফ মুতাহার একজন নামী ডাক্তার হিসেবে ২০১৮ সালে তিনি সাধারণ অনুশীলন পরীক্ষায় (FRACGP) পাস করেছেন এবং সর্ব কনিষ্ঠ স্বাস্থ বিশেষজ্ঞ হয়েছেন।

২০১৮ সালে তিনি একটি প্রসাধনী কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেছেন এবং এখন এটি একটি ডঃ ইউসুফ প্রসাধনী নামে জনপ্রিয় ব্র্যান্ডে পরিণত হয়েছে।

প্রসাধনী সামগ্রীর পাশাপাশি তিনি স্বাস্থ্য শিল্পের জন্য একটি পোশাকের ব্র্যান্ডও তৈরি করছেন, যার নাম ডঃ ইউসুফ স্ক্রাবস। ডাঃ ইউসুফ মুতাহার ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত তাঁর দুই কন্যা সন্তান রয়েছে।

ব্যবসা ও ডাক্তারী পেশার পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশে ইউসুফ ফাউন্ডেশন স্থাপনের মাধ্যমে আর্তমানবতার সেবায় আত্বনিয়োগ করার এক পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন। তিনি বাংলাদেশে চলচিত্র নির্মাণের ইচ্ছা পোষণ করছেন। তিনি সুস্থ ধারার চলচিত্র নির্মাণ করে দর্শক জনপ্রিয়তা অর্জন করতে চান।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর