কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


নিকলীতে এক ইউপি চেয়ারম্যানের মামলায় আরেক চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার


 স্টাফ রিপোর্টার | ৯ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৮:১০ | বিশেষ সংবাদ 


কিশোরগঞ্জ-৫ (বাজিতপুর-নিকলী) আসনের সংসদ সদস্য মো. আফজাল হোসেনের বিরুদ্ধে ফেসবুকে পোস্ট দেয়ার অভিযোগে নিকলী থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে এক ইউপি চেয়ারম্যানের দায়ের করা মামলায় উপজেলার সিংপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আনোয়ারুল হক (৫৫) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার (৮ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর উত্তরা এলাকার ৯নং সেক্টরের ৭নং রোডের ২৮নং নিজ বাসা থেকে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশের সহায়তায় তাকে গ্রেপ্তার করে নিকলী থানা পুলিশ। পরে বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) দুপুরে কিশোরগঞ্জের আদালতে নিয়ে যাওয়ার পর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

এর আগে বুধবার (৮ জানুয়ারি) রাত ৭টা ৪০মিনিটে নিকলী সদর ইউপি চেয়ারম্যান উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কারার শাহরিয়ার আহমেদ তুলিপ বাদী হয়ে সিংপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আনোয়ারুল হক, তার ছেলে এ.আর. রকি এবং নিকলী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. ইকবাল হোসেন এই তিনজনের নামোল্লেখ এবং ৩/৪ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে ২০১৮ সনের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫/২৯/৩১/৩৫ ধারায় নিকলী থানায় মামলাটি (নং-৩) দায়ের করেন।

গ্রেপ্তার হওয়া সিংপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আনোয়ারুল হক সিংপুর ইউনিয়নের ভাটিবরাটিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজের ছেলে।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, কিশোরগঞ্জ-৫ (বাজিতপুর-নিকলী) আসনের পর পর তিন বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য মো. আফজাল হোসেন তার নির্বাচনী এলাকায় খুবই জনপ্রিয় এবং নিকলী-বাজিতপুর এর মানুষের নিকট সততার মূর্ত প্রতীক হিসেবে পরিচিত। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা ও জিরো টলারেন্স নীতির আলোকে নিকলী-বাজিতপুরের মাদক-ব্যবসায়ীদের কাছে মূর্তিমান আতঙ্ক হিসেবে পরিচিত।

তিনি নিকলী-বাজিতপুরে মাদক-ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন পর্যায়ের দুর্নীতিবাজ ব্যক্তিদের উপর সাঁড়াশি অভিযান অব্যাহত রেখেছেন। তিনি তার নির্বাচনী এলাকায় বিভিন্ন স্কুল-কলেজ, মসজিদ, মাদরাসা, মন্দির ও রাস্তাঘাটের ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করেছেন। হাওর এলাকায় নদী ভাঙন মানুষের আর্থ সামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন।

আসামিরাসহ কিছু কুচক্রী মহল সংসদ সদস্যের জনপ্রিয়তা ও সাফল্যে ঈর্ষান্বিত হয়ে তার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করাসহ তার পরিবার, বাংলাদেশ সরকার তথা আওয়ামী লীগের মানহানি করার চেষ্টা করছে।

আসামিরা পরস্পর যোগসাজশ করে তাদের নিজ নিজ নামীয় ফেসবুক আইডি থেকে বিভিন্ন আপত্তিকর পোস্ট আপলোড এবং শেয়ার করে সংসদ সদস্যের ইমেজ ক্ষুন্ন করার চেষ্টা করছে।

এ ব্যাপারে নিকলী থানার ওসি মো. শামছুল আলম সিদ্দিকী জানান, বুধবার (৮ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর উত্তরা এলাকার ৯নং সেক্টরের বাসা থেকে মামলার প্রধান আসামি সিংপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আনোয়ারুল হককে গ্রেপ্তারের পর বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) আদালতে পাঠানো হয়েছে।

তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে রিমান্ডের আবেদন করা হবে। এছাড়া মামলার অপর দুই আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর