কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


হাওর ভূমিপুত্র ড. নিয়াজ পাশার মৃত্যু বার্ষিকীতে স্মরণ সভা ও স্মারকগ্রন্থ


 স্টাফ রিপোর্টার | ১৩ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার, ১১:০২ | ইটনা  


হাওর ভূমিপুত্র কৃষিবিদ ড. নিয়াজ উদ্দিন পাশার তৃতীয় মৃত্যু বার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে সোমবার (১৩ জানুয়ারি) গ্রামের বাড়ি ইটনা উপজেলার মৃগা ইউনিয়নের লাইমপাশার লাইমপাশা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

হাজী তারাপাশা ফাউন্ডেশনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত এই স্মরণ সভায় ড. নিয়াজ উদ্দিন পাশার কর্মময় জীবন নিয়ে প্রকাশিত স্মারকগ্রন্থ ‘তুমি রবে নীরবে’ এর পাঠ উন্মোচন করা হয়েছে।

স্মরণ সভায় সভাপতিত্ব করেন মরহুম ড. নিয়াজ উদ্দিন পাশার স্ত্রী ফারজানা আফরোজ আশা।

স্মরণ সভায় উপস্থিত থেকে স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা রওশন আলী রুশো, লাইমপাশা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাবীবুর রহমান, সহকারী শিক্ষক তাজুল ইসলাম, ওয়াহেদুজ্জামান আপেল, মকবুল হোসেন মাষ্টার, ছাত্রনেতা আলমগীর ফরিদ, আফাজ উদ্দিন মেম্বার, আলমাছ আলী প্রমুখ।

স্মরণ সভায় আলোচনা শেষে ড. নিয়াজ উদ্দিন পাশার স্মারকগ্রন্থ ‘তুমি রবে নীরবে’ উপস্থিত অতিথিদের মধ্যে বিতরণ করা হয়।

ড. নিয়াজ উদ্দিন পাশা কৃষি উন্নয়নের নিবিষ্ট একজন লেখক গবেষকের নাম। বিশেষত হাওর এলাকার কৃষির সামগ্রিক উন্নয়নে তিনি আমৃত্যু কাজ করে গেছেন।

রাজধানীর সার্ক এগ্রিকালচার সেন্টারে কর্মরত থেকেও দেশের কৃষকদের স্বার্থ ও কৃষি ব্যবস্থার উন্নয়নে মূলধারার গণমাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে তিনি নিয়মিতভাবে লিখে গেছেন। হাওর অঞ্চলের জন্য অন্তঃপ্রাণ এই কৃষিবিদ আমৃত্যু হাওরের কৃষি ও কৃষককের জন্য কাজ করেছেন।

শিক্ষাজীবন থেকেই কৃষি সাংবাদিকতার সাথে ‍যুক্ত নিয়াজ পাশা বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক হল ছাত্র সংসদের সাবেক সহ-সভাপতি (ভিপি) ছিলেন।

‘হাওর ভূমিপুত্র’ হিসেবে নিজের পরিচয় দিতে স্বাচ্ছন্দবোধ করা নিয়াজ পাশা অনগ্রসর হাওর অঞ্চলের উন্নয়নে নিয়মিত লেখালেখির পাশাপাশি সরকারের উচ্চপর্যায়ে এসব দাবি বাস্তবায়নেও তৎপর থেকেছেন।

জীবনের শেষ কয়েক বছর ধরে নানা শারীরিক জটিলতার মাঝেও পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি হাওর ও কৃষি বিষয়ক নানা ইস্যুতে তাঁর লেখালেখি অব্যাহত ছিল।

ড. নিয়াজ পাশার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের নির্দেশে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ‘হাওর ও চর উন্নয়ন ইনস্টিটিউট’।

২০১৬ সালের ২৫ ডিসেম্বর ব্রেইন স্ট্রোক হওয়ার পর সংকটাপন্ন অবস্থায় কৃষিবিদ ড. নিয়াজ উদ্দিন পাশাকে প্রথমে বারডেম ও পরে ধানমন্ডির একটি ক্লিনিকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসা দেয়া হয়। পরবর্তীতে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়।

১৫ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর ২০১৭ সালের ১০ জানুয়ারি রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি না ফেরার দেশে পাড়ি জমান।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর