কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ভৈরবে মাদক সেবন এবং জুয়া খেলায় ১১ জনের কারাদণ্ড


 স্টাফ রিপোর্টার | ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার, ২:৫০ | অপরাধ 


ভৈরবে মাদক সেবন ও জুয়া খেলার অপরাধে ১১ জনকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত ভৈরবের চন্ডিবের ও মুসলিম মোড় এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত তাদের সাজা প্রদান করে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতে দণ্ডিতরা হলো, মোঃ দুলাল মিয়া (৩৬), মোঃ আক্কাছ মিয়া (৭০), মোঃ হানিফ (৩২), মোঃ সুমন (৩৫), মোঃ স্বাধীন মিয়া (৫৯), মোঃ স্বপন (৩৫), মোঃ সাজিত (৫৮), মোঃ আলকাচ মিয়া (৫০), মোঃ আলাল (৪৫), মোঃ ফারুক মিয়া (৫৫) ও মোঃ ইব্রাহিম মিয়া (৬০)।

তাদের মধ্যে মোঃ দুলাল মিয়া, মোঃ আক্কাছ মিয়া ও মোঃ হানিফ কে চার মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড, মোঃ সুমন, মোঃ স্বাধীন মিয়া ও মোঃ স্বপন কে তিন মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও প্রত্যেককে দুইশ’ টাকা জরিমানা, মোঃ সাজিত, মোঃ আলকাচ মিয়া, মোঃ আলাল ও মোঃ ফারুক মিয়া কে ১৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং মোঃ ইব্রাহিম মিয়া কে ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

র‌্যাব-১৪, সিপিসি-৩, ভৈরব ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিউদ্দীন মোহাম্মদ যোবায়ের জানান, র‌্যাব তার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে জঙ্গি ও সন্ত্রাস, মাদক, অস্ত্র, অপহরণ, মানবপাচার, হত্যা, ভেজাল পণ্য ধ্বংস, বিভিন্ন ধরনের কালোবাজারী ব্যবসাসহ বিভিন্ন প্রকার অবৈধ কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে আপসহীন অবস্থানে থেকে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে যা দেশের সর্বস্তরের জনসাধারণ কর্তৃক ইতোমধ্যে বিশেষভাবে প্রশংসিত হয়েছে।

র‌্যাব-১৪, সিপিসি-৩, ভৈরব ক্যাম্প গোপন সংবদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব থানাধীন চন্ডিবের সরকারি হাসপাতালের পশ্চিম পার্শ্বে এবং মুসলিম মোড় এলাকায় কতিপয় মাদক সেবনকারী মাদকদ্রব্য সেবন করছে এবং জুয়া খেলছে।

এই সংবাদ পেয়ে র‌্যাব ভৈরব ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিউদ্দীন মোহাম্মদ যোবায়ের এবং কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুবনা ফারজানা’দ্বয়ের নেতৃত্বে একটি আভিযানিক দল সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত ভৈরবের চন্ডিবের ও মুসলিম মোড় এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানে চন্ডিবের সরকারি হাসপাতাল এলাকা থেকে মোঃ দুলাল মিয়া, মোঃ আক্কাছ মিয়া, মোঃ হানিফ, মোঃ সুমন, মোঃ স্বাধীন মিয়া ও মোঃ স্বপন এই ছয়জনকে মাদক সেবনের অপরাধে আটক করা হয়।

এছাড়া মুসলিম মোড় এলাকা থেকে মোঃ সাজিত, মোঃ আলকাচ মিয়া, মোঃ আলাল, মোঃ ফারুক মিয়া ও মোঃ ইব্রাহিম মিয়া এই পাঁচজনকে জুয়া খেলার অপরাধে আটক করা হয়।

এ সময় তাদের কাছ থেকে দুই সেট তাস ও জুয়া খেলার ১৪ হাজার ৪৫০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

পরে আটককৃত ১১ জনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করা হয়।

সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে মোঃ দুলাল মিয়া ভৈরবপুর গ্রামের মৃত সাদেক মিয়ার ছেলে, মোঃ আক্কাছ মিয়া ভৈরবপুর উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত মোঃ গেদু মিয়ার ছেলে, মোঃ হানিফ ভৈরবপুর উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত মতি মিয়ার ছেলে, মোঃ সুমন কালিপুর গ্রামের মোঃ আঙ্গুর মিয়ার ছেলে, মোঃ স্বাধীন মিয়া চন্ডিবের গ্রামের মৃত ছেগার আলীর ছেলে, মোঃ স্বপন কমলপুর গ্রামের মৃত তাহের মিয়ার ছেলে, মোঃ সাজিত কমলপুর মৃত কাদের মিয়ার ছেলে, মোঃ আলকাচ মিয়া পানয়ারচর গ্রামের মৃত আঃ মজিদ ব্যাপারীর ছেলে, মোঃ আলাল কমলপুর গ্রামের মৃত চান মিয়ার ছেলে, মোঃ ফারুক মিয়া কমলপুর গ্রামের মৃত মনোয়ার আলীর ছেলে এবং মোঃ ইব্রাহিম মিয়া কমলপুর গ্রামের মৃত আঃ জব্বারের ছেলে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর