কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জ থেকে দুইদিনে ৮ জনের নমুনা পাঠানো হয়েছে আইপিএইচ এর ল্যাবে


 স্টাফ রিপোর্টার | ৫ এপ্রিল ২০২০, রবিবার, ৫:২৫ | বিশেষ সংবাদ 


করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ সংক্রামণ প্রতিরোধে কিশোরগঞ্জ জেলা থেকে দুইদিনে মোট ৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য মহাখালীর ইনস্টিটিউট অব পাবলিক হেলথ (আইপিএইচ) এ পাঠানো হয়েছে।

এর মধ্যে তিনজনের নমুনা সংগ্রহের পর শনিবার (৪ এপ্রিল) সকালে আইপিএইচ এ পাঠানো হয়েছে।

আর রোববার (৫ এপ্রিল) পাঠানো হয়েছে বাকি পাঁচজনের। এই পাঁচজনের মধ্যে একজন মৃত ব্যক্তি রয়েছে।

কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, রোববার (৫ এপ্রিল) নমুনা পাঠানো পাঁচজনের মধ্যে দুইজন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার, একজন করিমগঞ্জ উপজেলার (মৃত ব্যক্তি) এবং দুইজন ভৈরব উপজেলার।

এর আগের দিন শনিবার (৪ এপ্রিল) নমুনা পাঠানো তিনজনের মধ্যে একজন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার, একজন হোসেনপুর উপজেলার ও অপরজন নিকলী উপজেলার।

সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান জানান, নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট সোমবার (৬ এপ্রিল) পাওয়া যাবে বলে তারা আশা করছেন।

ডা. মো. মুজিবুর রহমান আরো জানান, করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের ঝুঁকি এড়াতে এ নিয়ে কিশোরগঞ্জ জেলা থেকে অদ্যাবধি মোট ১৪ জনের কোভিড-১৯ নমুনা পাঠানো হয়েছে। আগে নমুনা সংগৃহীত ৬ জনের মধ্যে ৬ জনেরই রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

এদিকে রোববার (৫ এপ্রিল) নমুনা পাঠানো পাঁচজনের মধ্যে শনিবার (৪ এপ্রিল) দুপুরে মারা যাওয়া করিমগঞ্জ উপজেলার কাদির জঙ্গল ইউনিয়নের কুর্শ্বাখালী গ্রামের এক যুবকের নমুনা রয়েছে। ওই যুবক শ্বাসকষ্টজনিত রোগে মারা যায়।

তার মৃত্যুর পর চিকিৎসার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্স ও পরিবারের সদস্যসহ মোট ১১ জনকে নজরদারি রাখা হয়েছে। কোভিড-১৯ নমুনা রিপোর্ট পাওয়ার পর তাদের ব্যাপারে পরবর্তি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এদিকে করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ সংক্রামণ প্রতিরোধে কিশোরগঞ্জ জেলায় মোট ১৩২২ জন প্রবাসীকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। তাদের মধ্যে মোট ১২৩২ জন তাদের কোয়ারেন্টাইন সমাপ্ত করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন।

জেলা প্রশাসন ও সিভিল সার্জন অফিসের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে জেলায় মোট ৯০ জন কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। তাদের মধ্যে একজন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে এবং বাকি ৮৯ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

এর মধ্যে নতুন করে ৪৪ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। রোববার (৫ এপ্রিল) সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘন্টায় এই ৪৪ জনকে কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এছাড়া এই ২৪ ঘন্টায় মোট ৩৭ জন তাদের কোয়ারেন্টাইন সমাপ্ত করেছেন।

কিশোরগঞ্জ জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে বর্তমানে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ১৫ জন, হোসেনপুরে ১ জন, করিমগঞ্জে ১১ জন, পাকুন্দিয়ায় ২ জন, কটিয়াদীতে ৩ জন, কুলিয়ারচরে ২ জন, ভৈরবে ২৯ জন, নিকলীতে ৯ জন, বাজিতপুরে ১৫ জন, মিঠামইনে ২ জন ও অষ্টগ্রামে ১ জন কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

এর মধ্যে নিকলী উপজেলার ১ জন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান জানান, কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীদের মধ্যে মোট ১২৩২ জন তাদের কোয়ারেন্টাইন সমাপ্ত করেছেন। এই সময়ে তাদের কারো মধ্যে করোনা ভাইরাসের কোন লক্ষণ দেখা যায়নি।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর