কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কটিয়াদীতে প্রশাসনের তৎপরতায় বন্ধ হলো সাপ্তাহিক হাট


 কটিয়াদী সংবাদদাতা | ২৩ এপ্রিল ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১০:৪৮ | কটিয়াদী 


বৃহস্পতিবার কটিয়াদীর সাপ্তাহিক হাটের দিন। হাটের দিন শুধু কটিয়াদী উপজেলার লোকজনই নয়, করোনার ঝুঁকিপূর্ণ জেলা পার্শ্ববর্তী নরসিংদী জেলার প্রচুর লোকজনও এই হাটে বাজার করতে আসে।

দীর্ঘদিনের প্রাচীন এই হাটটিতে সাপ্তাহিক বৃহস্পতিবার হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটে। সাপ্তাহিক এই হাটকে ঘিরে বড় ধরনের জনসমাগমের আশঙ্কা থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে নোটিশ জারী করে হাটটি বন্ধ ঘোষণা করে উপজেলা প্রশাসন।

কিন্তু বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অনেক ব্যবসায়ী হাটে জড়ো হতে শুরু করেন। হাটটিকে ঘিরে লোকসমাগমও বাড়ার আশঙ্কা দেখা দেয়।

এতে সামাজিক দূরত্ব ব্যাপক বাধাগ্রস্থ হওয়ার পাশাপাশি করোনা সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকির দিক বিবেচনা করে কটিয়াদী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আশরাফুল আলম সেনাবাহিনীকে নিয়ে কটিয়াদী বাজারে সাঁড়াশি অভিযান চালান।

এ সময় সামাজিক দূরত্ব না মানা লোকসমাগম পণ্ড করে দেয়া হয়। কটিয়াদী পুরাতন বাজার, সবজি মহল, মাছ বাজার এবং চরঝাঁকালিয়া বাজারসহ সব বাজারে অভিযান চালানো হয় এবং লোকজনকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশ প্রদান করা হয়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আশরাফুল আলম উপজেলার আচমিতা বাজারে অভিযান চালান এবং করোনা প্রতিরোধে সচেতনতা কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

অভিযানকালে বিভিন্ন অপরাধের কারণে তিনি তিনজনকে মোট এক হাজার দুইশত টাকা জরিমানা করেন।

ক্যাপ্টেন ইমরানের নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর সদস্যরা এ সময় এই জনসচেতনতামূলক কার্যক্রমে সহায়তা করেন।

এছাড়া র‌্যাব ও পুলিশ সদস্যরা অভিযান পরিচালনায় সহযোগিতা করেন। কটিয়াদী পৌরসভার স্যানিটারী ইন্সপেক্টর দিদারুল আলম রাসেল এ সময় তাদের সাথে ছিলেন।

অভিযান প্রসঙ্গে সহকারী কমিশনার (ভূমি)ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আশরাফুল আলম জানান, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতেই আমাদের এই অভিযান। আমাদের এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর