কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


পাকুন্দিয়ায় করোনা পরবর্তী খাদ্য ঘাটতি মোকাবেলায় কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে সবজি বীজ বিতরণ


 রাজন সরকার, পাকুন্দিয়া | ১৪ মে ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১২:৫২ | পাকুন্দিয়া  


কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় করোনাভাইরাস পরবর্তী খাদ্য ঘাটতি মোকাবেলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে সবজি বীজ বিতরণ কার্যক্রম শুরু করেছে উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর।

গত মঙ্গলবার (১২ মে) উপজেলা কৃষি অধিদপ্তরের উদ্যোগে এগারসিন্দুর ইউনিয়নের দক্ষিণ খামা সিআইজি মহিলা সমবায় সমিতির লিমিটেড ও চরদেওকান্দি পুরুষ সিআইজি সবজি সমবায় সমিতির ৬০ জন কৃষকদের মাঝে সবজি বীজ বিতরণের মাধ্যমে এই কার্যক্রম শুরু করা হয়।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ সাইফুল হাসান আলামিনের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কিশোরগঞ্জ জেলা খামারবাড়ীর উপ-পরিচালক ছাইফুল আলম।

এ সময় জেলা খামারবাড়ির অতিরিক্ত উপ-পরিচালক আশেক পারভেজ, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার আব্দুস সামাদ, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোশাররফ হোসেন, মোহাম্মদ হামিমুল হক সোহাগ, জহিরুল হক জনি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আঙ্গিয়াদী ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকতা মোহাম্মদ হামিমুল হক সোহাগ বলেন, উপজেলা কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে সর্বদাই আমরা কৃষকদের পাশে আছি এবং থাকব। একজন কৃষক কোন জায়গায়, কি ধরনের ফসল ফলাবে, কিভাবে বীজ বপন করবে, সে ধরনের পরামর্শ আমরা সবসময় দিয়ে যাচ্ছি। যার প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে অনেক অনাবাদী জমি আবাদের আওতায় চলে আসছে।

উপজেলা কৃষি অফিসার সাইফুল হাসান আলামিন বলেন, এগারসিন্দুর ইউনিয়নের ২টি গ্রামে বিনামূল্যে সবজি বীজ বিতরণ করা হয়েছে। আমরা প্রতি ইউনিয়নে কৃষকের উঠানে গিয়ে কৃষকদের সবজি চাষের পরামর্শ প্রদানের মাধ্যমে তাদেরকে সবজি বীজ দিয়ে আসব।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কিশোরগঞ্জ জেলা খামারবাড়ীর উপ-পরিচালক ছাইফুল আলম বলেন, করোনা পরবর্তী খাদ্য ঘাটতি মোকাবেলায় এদেশের কৃষক ও কৃষাণীদের এগিয়ে আসতে হবে। সকল জায়গাকে আবাদের আওতায় আনতে হবে। কোন জায়গা পতিত রাখা যাবে না।

তিনি কৃষক ও কৃষাণীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে কৃষিকাজ অব্যাহত রেখে উৎপাদন বৃদ্ধি করতে হবে বলে পরামর্শ দেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর