www.kishoreganjnews.com

একাত্তরে তাড়াইলের প্রধান শিক্ষক মহিউদ্দিন আহাম্মদ হত্যার তদন্ত শুরু



[ মোস্তফা কামাল | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭, সোমবার, ৯:২১ | মুক্তিযুদ্ধ ]


একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে তাড়াইল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহিউদ্দিন আহাম্মদকে হত্যার তদন্ত শুরু হয়েছে। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের তদন্ত কর্মকর্তা আতাউর রহমান রোববার থেকে তদন্তকাজ শুরু করেছেন। তাড়াইল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহিউদ্দিন আহাম্মদ কিশোরগঞ্জ শহরের গাইটাল শিক্ষকপল্লীর বাসিন্দা ছিলেন। একাত্তরের ১০ নভেম্বর বিকালে শিক্ষকপল্লীর বাসা থেকে শহরের কাচারি বাজারে বাজার করতে গেলে রাজাকার-আলবদররা তাকে ধরে নিয়ে হত্যা করে। তার লাশটি শেষ পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, মহিউদ্দিন আহাম্মদ একাত্তরে তাড়াইল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক থাকাকালে এলাকার যুবক-তরুণদের মুক্তিযুদ্ধের জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেন। তার ছেলে সরকারি গুরুদয়াল কলেজের ডেমনস্ট্রেটর (প্রদর্শক) ওয়াহিদুজ্জামান দুলাল জানান, তার বাবা একত্তরের ১০ই নভেম্বর বিকালে শিক্ষকপল্লীর বাসা থেকে শহরের কাচারি বাজারে বাজার করতে গেলে রাজাকার-আলবদররা তাকে ধরে নিয়ে হত্যা করে। তার লাশটি শেষ পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

ট্রাইবুনালের তদন্ত কর্মকর্তা আতাউর রহমান জানান, তাড়াইলের সাচাইল গ্রামের লুৎফর রহমান নামে এক ব্যক্তি কয়েকদিন আগে তাড়াইলের ধলা গ্রামের অ্যাডভোকেট জহিরুল হক নামে এক ব্যক্তিকে মহিউদ্দিন আহাম্মদের হত্যাকারী হিসেবে উল্লেখ করে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। এর প্রেক্ষিতেই প্রাথমিক তদন্ত শুরু হয়েছে। কয়েকজনের সাক্ষ্যও গ্রহণ করা হয়েছে। আরো তদন্ত হবে। তারপর পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে।

এলাকাবাসী জানায়, অভিযুক্ত ঘাতক অ্যাডভোকেট জহিরুল হক একাত্তরে মহিউদ্দিন আহাম্মদের স্কুলে শিক্ষককতা করতেন। বর্তমানে তিনি জামায়াত নেতা।



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]



প্রধান সম্পাদক: আশরাফুল ইসলাম

সম্পাদক: সিম্মী আহাম্মেদ

সেগুনবাগিচা, গৌরাঙ্গবাজার

কিশোরগঞ্জ-২৩০০

মোবাইল: +৮৮০ ১৮১৯ ৮৯১০৮৮

ইমেইল: kishoreganjnews247@gmail.com

©All rights reserve www.kishoreganjnews.com