কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কারোনাকালে স্বাস্থ্য বিভাগের পাশে মানবিক জেলা প্রশাসক


 বিশেষ প্রতিনিধি | ২৮ আগস্ট ২০২০, শুক্রবার, ৯:০০ | সম্পাদকের বাছাই  


কিশোরগঞ্জে করোনাভাইরাস মোকাবেলায় শুরু থেকে স্বাস্থ্য বিভাগকে নানাভাবে সহযোগিতা দিয়ে আসছিল জেলা প্রশাসন। করোনাকালে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রীসহ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা ও নমুনা পরীক্ষাসহ জেলাবাসীকে নিরপদে রাখার সবকাজে স্বাস্থ্যবিভাগকে সহযোগিতা দিয়ে আসছেন জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী।

সম্প্রতি স্বাস্থ্যবিভাগের কাছে অন্যান্য স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী থাকলেও হ্যান্ডগ্লাভসের সংকট দেখা দেয়। কিছুতেই এগুলোর সরবরাহ পাচ্ছিল না তারা। ফলে চিকিৎসক, নার্স, মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের কাজে মারাত্মক ব্যাঘাত ঘটছিল।

বিষয়টি করোনা প্রতিরোধ সংক্রান্ত জেলা কমিটির সভাপতি, জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরীর নজরে আনেন সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান। বিষয়টি জেনেই জেলা প্রশাসক তিন হাজার জোড়া উন্নতমানের গ্লাভসের ব্যবস্থা করে দেন স্বাস্থ্য বিভাগকে।

পাগলা মসজিদের তহবিল থেকে মানবতার সেবায় এক লাখ ৩০ হাজার টাকা স্বাস্থ্যবিভাগকে দেওয়া হয়। তিন হাজার জোড়া গ্লাভস দিয়ে তাদের অন্তত তিন মাস চলবে বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) বিকেলে সিভিল সার্জনের কাছে এগুলো হস্তান্তর করেন জেলা প্রশাসক।

এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. মোস্তাফিজুর রহমানসহ জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

গ্লাভস হস্তান্তরের সময় সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর জানান, এর আগে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য চারটি অত্যাধুনিক হাইফ্লো ন্যাজাল ক্যানুলার ব্যবস্থা করে দেন জেলা প্রশাসক। যা করোনা আক্রান্ত মুমূর্ষু রোগীদের চিকিৎসায় কার্যকরী ভূমিকা রাখছে।

তিনি জানান, জেলা প্রশাসক এর আগে কোভিড-১৯ মোকাবেলার শুরুতেই চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য নিরাপত্তা সামগ্রী কিনতে দুই লাখ টাকা দেন। এছাড়া সন্দেহজনক কোভিড-১৯ রোগীর নিরাপদ স্যাম্পল সংগ্রহের প্রয়োজনে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুটি স্যাম্পল কালেকশন বুথ স্থাপন করে দেন।

একই সঙ্গে সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য আইপিএস প্রদানসহ আরো দুই লাখ টাকার চিকিৎসা ও নিরাপত্তা সামগ্রী দেন জেলা প্রশাসক।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী জানান, করোনাকালে মানুষের স্বাস্থ্যসেবার গুরুত্ব সবার আগে। তাই এ বিষয়ে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সম্ভব সব ধরণের সহযোগিতা দেয়া হচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগকে। যেন করোনা প্রতিরোধ ও করোনা রোগীদের চিকিৎসাসেবার কোনো সমস্যা না হয়। আরও সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর