কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে করোনা শনাক্ত বেড়ে ২৭০১, সুস্থ বেড়ে ২৫২২, আরো একজনের মৃত্যু


 কিশোরগঞ্জ নিউজ রিপোর্ট | ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার, ১২:৫৫ | বিশেষ সংবাদ 


কিশোরগঞ্জে সর্বশেষ শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে প্রকাশিত রিপোর্টে গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় নতুন করে ৮ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। এতে করে জেলার ১৩টি উপজেলায় মোট ২৭০১ জনের করোনা শনাক্ত হলো।

অন্যদিকে নতুন করে জেলায় মোট ৬ জন করোনামুক্ত হয়ে সুস্থ হয়েছেন। ফলে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৫২২। এছাড়া এই ২৪ ঘন্টায় জেলায় করোনা আক্রান্ত একজনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৭ জন।

জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে সর্বশেষ মারা যাওয়া ব্যক্তি একজন পুরুষ (৬৫)। তিনি জেলার ভৈরব উপজেলার বাসিন্দা। গত ১১ সেপ্টেম্বর তার কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছিল।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬টার দিকে কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তিনি উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিস রোগে ভুগছিলেন।

নতুন করোনা শনাক্ত হওয়া ৮ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৬ জন শনাক্ত হয়েছেন। বাকি ২ জনের মধ্যে করিমগঞ্জ উপজেলায় ১ জন এবং মিঠামইন উপজেলায় ১ জন রয়েছেন।

এই ২৪ ঘন্টায় জেলার করোনা ডেডিকেটেড কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নতুন করে ৪ জন ভর্তি হয়েছেন। এছাড়া ৪ জন ছাড়পত্র পেয়েছেন।

বর্তমানে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কোভিড-১৯ আক্রান্ত ও সন্দেহজনক মোট ২৮ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন। তাদের মধ্যে ৫ জন আইসিইউ’তে ভর্তি রয়েছেন।

নতুন সুস্থ হওয়া ৬ জনের মধ্যে ৪ জন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার। এছাড়া বাকি ২ জনের মধ্যে হোসেনপুর উপজেলার ১ জন এবং ভৈরব উপজেলার ১ জন রয়েছেন।

বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর), বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ও শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) জেলায় সংগৃহীত ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে এই ৮ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে।

অন্যদিকে ৮৬ জনের নেগেটিভ এসেছে।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) নতুন ৮ জনের করোনা পজেটিভ আসায় জেলার ১৩টি উপজেলায় মোট ২৭০১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে মোট ২৫২২ জন সুস্থ হয়েছেন। এছাড়া করোনার ছোবলে এই সময়ে ঝরে গেছে ৪৭টি মূল্যবাণ প্রাণ।

সুস্থ ও মৃত ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে বর্তমানে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১৩২ জন। যা গতদিনের চেয়ে ১ জন বেশি। তাদের মধ্যে ৮ জন হাসপাতালে এবং বাকি ১২৪ জন নিজ নিজ বাড়িতে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।

এছাড়া অন্য জেলায় শনাক্তকৃত ১ জন করোনা পজেটিভ এবং ১৯ জন সাসপেক্টটেড/নেগেটিভ বিভিন্ন হাসপাতালে আইসোলেশনে রয়েছেন।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত সাড়ে ৯টার দিকে কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান কিশোরগঞ্জ নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান কিশোরগঞ্জ নিউজকে জানান, প্রকাশিত ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে নতুন করে ৮ জনের পজেটিভ ও ৮৬ জনের নেগেটিভ এসেছে।

ফলে শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী কিশোরগঞ্জ জেলায় মোট ২৭০১ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।

জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে মোট সংক্রমণ, মৃত্যু, সুস্থ ও আক্রান্তসহ সব সূচকেই জেলায় শীর্ষে রয়েছে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা।

সর্বমোট ৯৪০ জন শনাক্ত, সর্বমোট ৮৬১ জন সুস্থ, সর্বমোট ১৫ জনের মৃত্যু ও সর্বমোট ৬৪ জন বর্তমানে আক্রান্ত নিয়ে এই চার সূচকেই জেলায় শীর্ষে রয়েছে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা। তবে মোট মৃত্যুতে সদর উপজেলার সাথে একই অবস্থানে রয়েছে জেলার ভৈরব উপজেলা।

উপজেলাওয়ারী হিসাবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৯৪৬ জন, হোসেনপুর উপজেলায় ৬৯ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ১৩৯ জন, তাড়াইল উপজেলায় ১০৭ জন, পাকুন্দিয়ায় উপজেলায় ১৪৫ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ১৬৩ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ১২৫ জন, ভৈরব উপজেলায় ৬৩২ জন, নিকলী উপজেলায় ৫১ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ২২৮ জন, ইটনা উপজেলায় ৩৩ জন, মিঠামইন উপজেলায় ৪৩ জন ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ২০ জন এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

তাদের মধ্যে ৪৭ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন। উপজেলাওয়ারী হিসেবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ১৫ জন, হোসেনপুর উপজেলার ২ জন, করিমগঞ্জ উপজেলার ২ জন, তাড়াইল উপজেলার ১ জন, কটিয়াদী উপজেলার ২ জন, কুলিয়ারচর উপজেলার ৩ জন, ভৈরব উপজেলার ১৫ জন, নিকলী উপজেলার ৩ জন, বাজিতপুর উপজেলার ২ জন, ইটনা উপজেলার ১ জন ও মিঠামইন উপজেলার ১ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন।

সুস্থ ও মৃত ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে বর্তমানে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১৩২ জন। উপজেলাওয়ারী হিসাবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৬৬ জন, হোসেনপুর উপজেলায় ৩ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ৩ জন, তাড়াইল উপজেলায় ১ জন, পাকুন্দিয়ায় উপজেলায় ৫ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ১০ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ২ জন, ভৈরব উপজেলায় ২৫ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ১০ জন, মিঠামইন উপজেলায় ১ জন ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ৬ জন বর্তমানে করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি রয়েছেন।

জেলার নিকলী ও ইটনা এই দুই উপজেলায় বর্তমানে করোনা আক্রান্ত কোন রোগী নেই।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর