কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে নতুন ৯ জনের করোনা, শনাক্ত বেড়ে ৩১৩৭, সুস্থ ২৯৮৭


 কিশোরগঞ্জ নিউজ রিপোর্ট | ১২ নভেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১১:০২ | বিশেষ সংবাদ 


কিশোরগঞ্জে সর্বশেষ বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) দিবাগত রাতে প্রকাশিত রিপোর্টে গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় নতুন করে ৯ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। এতে করে জেলার ১৩টি উপজেলায় মোট ৩১৩৭ জনের করোনা শনাক্ত হলো।

অন্যদিকে নতুন করে জেলায় মোট ৬ জন করোনামুক্ত হয়ে সুস্থ হয়েছেন। ফলে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৯৮৭ জন। এই ২৪ ঘন্টায় জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে কোন মৃত্যু নেই। ফলে জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৫৪ অপরিবর্তিত রয়েছে।

সর্বশেষ প্রকাশিত এই রিপোর্টে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) ও বুধবার (১১ নভেম্বর) সংগৃহীত ৫৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

এতে ৯ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ ও ৪৯ জনের নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে।

এছাড়া বুধবার (১১ নভেম্বর) বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে ৯২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

এতে কারো কোভিড-১৯ পজেটিভ আসেনি। ৯২ জনের সবার নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে।

অর্থাৎ মোট ১৫০ জনের নমুনা পরীক্ষায় মোট ৯ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে।

নতুন করোনা শনাক্ত হওয়া ৯ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৫ জন শনাক্ত হয়েছেন।

এছাড়া বাকি ৪ জনের মধ্যে হোসেনপুর উপজেলায় ১ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ১ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ১ জন ও বাজিতপুর উপজেলায় ১ জন শনাক্ত হয়েছেন।

এদিকে নতুন সুস্থ হওয়া ৬ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৪ জন রয়েছেন।

বাকি ২ জনের মধ্যে করিমগঞ্জ উপজেলার ১ জন ও ভৈরব উপজেলার ১ জন রয়েছেন।

এই ২৪ ঘন্টায় কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নতুন ৩ জন ভর্তি হয়েছেন। এই সময়ে ২ জন ছাড়পত্র পেয়েছেন।

বর্তমানে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কোভিড-১৯ আক্রান্ত ও সন্দেহজনক মোট ৩১ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন। তাদের মধ্যে তিনজন আইসিইউতে রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) নতুন ৯ জনের করোনা পজেটিভ আসায় জেলার ১৩টি উপজেলায় মোট করোনা শনাক্ত এখন ৩১৩৭ জন।

তাদের মধ্যে মোট ২৯৮৭ জন সুস্থ হয়েছেন। এছাড়া করোনার ছোবলে এই সময়ে ঝরে গেছে ৫৪টি মূল্যবাণ প্রাণ।

সুস্থ ও মৃত ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে বর্তমানে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৯৬ জন। যা গত দিনের চেয়ে ৩ জন বেশি।

তাদের মধ্যে ১৭ জন হাসপাতালে এবং বাকি ৭৯ জন নিজ নিজ বাড়িতে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।

এছাড়া ১৪ জন সাসপেক্টটেড/নেগেটিভ বিভিন্ন হাসপাতালে আইসোলেশনে রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) দিবাগত রাত ৯টার দিকে কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান কিশোরগঞ্জ নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান কিশোরগঞ্জ নিউজকে জানান, প্রকাশিত ১৫০ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে নতুন করে ৯ জনের পজেটিভ ও ১৪১ জনের নেগেটিভ এসেছে।

ফলে বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) পর্যন্ত পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী কিশোরগঞ্জ জেলায় মোট ৩১৩৭ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।

জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে মোট সংক্রমণ, মৃত্যু, সুস্থ ও বর্তমানে আক্রান্ত এই চারটি সূচকের সব সূচকেই জেলায় শীর্ষে রয়েছে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা।

সর্বমোট ১১২৩ জন শনাক্ত, সর্বমোট ১০৭০ জন সুস্থ, সর্বমোট ১৬ জনের মৃত্যু ও ৩৭ জন বর্তমানে আক্রান্ত নিয়ে এই চার সূচকেই জেলায় শীর্ষে রয়েছে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা।

উপজেলাওয়ারী হিসাবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ১১২৩ জন, হোসেনপুর উপজেলায় ৮৬ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ১৪৭ জন, তাড়াইল উপজেলায় ১১৯ জন, পাকুন্দিয়ায় উপজেলায় ১৭০ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ২২৬ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ১৪৬ জন, ভৈরব উপজেলায় ৬৯৯ জন, নিকলী উপজেলায় ৫৩ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ২৬৯ জন, ইটনা উপজেলায় ৩৪ জন, মিঠামইন উপজেলায় ৪৪ জন ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ২১ জন এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

তাদের মধ্যে ৫৪ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন। উপজেলাওয়ারী হিসেবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ১৬ জন, হোসেনপুর উপজেলার ২ জন, করিমগঞ্জ উপজেলার ২ জন, তাড়াইল উপজেলার ১ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ৩ জন, কটিয়াদী উপজেলার ২ জন, কুলিয়ারচর উপজেলার ৪ জন, ভৈরব উপজেলার ১৫ জন, নিকলী উপজেলার ৩ জন, বাজিতপুর উপজেলার ৪ জন, ইটনা উপজেলার ১ জন ও মিঠামইন উপজেলার ১ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন।

সুস্থ ও মৃত ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে বর্তমানে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৯৬ জন। উপজেলাওয়ারী হিসাবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৩৭ জন, হোসেনপুর উপজেলায় ২ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ২ জন, তাড়াইল উপজেলায় ৪ জন, পাকুন্দিয়ায় উপজেলায় ৫ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৬ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ৩ জন, ভৈরব উপজেলায় ২৮ জন, নিকলী উপজেলায় ২ জন এবং বাজিতপুর উপজেলায় ৭ জন বর্তমানে করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি রয়েছেন।

জেলার ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম এই তিন উপজেলায় বর্তমানে করোনা আক্রান্ত কোন রোগী নেই।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর