কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ভৈরবের রেলওয়ে কলোনীতে র‌্যাবের অভিযান, ১৭ মাদক ব্যবসায়ীর কারাদণ্ড


 স্টাফ রিপোর্টার | ৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার, ৬:৫৯ | ভৈরব 


কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার রেলওয়ে কলোনীতে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব। এ সময় কলোনী থেকে ৪৯০৫ লিটার চোলাই মদ উদ্ধার করা হয়। পরে এসব উৎপাদন ও বিক্রির অভিযোগে ১৭ মাদক ব্যাবসায়ীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ভৈরব উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিমাদ্রী খিসা।

রোববার (২৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় র‌্যাব-১৪ সিপিসি-৩ ভৈরব ক্যাম্পের একটি দল এই অভিযান চালায়। এতে নেতৃত্ব দেন কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিউদ্দীন মোহাম্মদ যোবায়ের ও স্কোয়াড কমান্ডার এএসপি মোহাম্মদ বেলায়েত হোসাইন।

এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ভৈরব উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিমাদ্রী খিসা উপস্থিত ছিলেন।

র‌্যাব-১৪, ভৈরব ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক রফিউদ্দীন মোহাম্মদ যোবায়ের জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে দীর্ঘদিন ধরে ওই কলোনীতে কিছু অসাধু মানুষ মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর চোলাই মদ উৎপাদন ও বিক্রি করে আসছিল।

এ প্রেক্ষিতে সেখানে অভিযান চালাানো হয়। অভিযানে ১৭ জনকে আটক করা হয়।

এর মধ্যে ৯জনকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০০ টাকা করে জরিমানা এবং ৮জনকে ৭ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০০ টাকা করে জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিমাদ্রী খিসা।

৬ মাসের দণ্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছে, ভৈরব পৌরসভার টিনপট্টি কাঠবাজার এলাকার ওয়াজ উদ্দিনের ছেলে মো. রুস্তম (৫৫), ভৈরবপুর দক্ষিণ পাড়া গ্রামের কেরামত আলীর ছেলে মো. মাইনু মিয়া (৪২), মোঃ খুরশেদ আলমের ছেলে মো. শাহ আলম (৬০),চণ্ডিবের গ্রামের বিশ্বজিতের ছেলে রাজীব বয়ান (২৫), সম্ভুপুর রেলগেইট এলাকার পা-পুছার ছেলে মো. আলামিন (৪০), সম্ভুপুর গ্রামের মৃত কাছম আলীর ছেলে মো. হযরত আলী (৫০), লক্ষীপুর গ্রামের মৃত মোনতাজ মিয়ার ছেলে মো. মিজানুর রহমান (৫২) এবং কুলিয়ারচর উপজেলার খড়গপাড়া গ্রামের আবতাব উদ্দিন ভূইয়ার ছেলে মো. নূর চাঁন (৫৫) ও আরিছ মিয়ার ছেলে মো. জামান মিয়া (৪১)।

৭ মাসের দণ্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছে, ভৈরব পৌরসভার ভৈরবপুর দক্ষিণপাড়া গ্রামের আবুল বাসারের ছেলে মো. সোহেল (৩২), মো. জজ মিয়ার ছেলে মো. সুমন মিয়া (২৭), মো. ওয়ালেছ মিয়ার ছেলে মো. বাদল মিয়া (৩০), মো. বিল্লাল মিয়ার ছেলে মো. শরিফ মিয়া (৬৫), চণ্ডিবের গ্রামের কামাল হোসেনেরে ছেলে মো. মাসুম সিকদার (৩০), আমানপাড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে বিল্লাল মিয়া (৩০), কুলিয়ারচর উপজেলার ছয়সুতি গ্রামের মো. নূরুল ইসলামের ছেলে মো. সাইফুল (৩৫) এবং অষ্টগ্রাম উপজেলার আদমপুর গ্রামের মরতুছ আলীর ছেলে মো. মইনদ্দিন (৩২)।

র‌্যাব-১৪, ভৈরব ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক রফিউদ্দীন মোহাম্মদ যোবায়ের জানান, উদ্বারকৃত চোলাই মদ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হয়। র‌্যাবের এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর