কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


২০২০: সড়কে প্রাণহানির ঘটনায় কটিয়াদীতে বিষাদময় বছর


 মো. রফিকুল হায়দার টিটু, কটিয়াদী | ৩১ ডিসেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১০:৪২ | কটিয়াদী 


২০২০ সালটি সড়ক দুর্ঘটনায় বিষাদময়, বেদনাবিধুর ছিল কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে। বছর জুড়েই একের পর এক সড়ক দুর্ঘটনার ঘটনা ছিল আলোচিত বিষয়। দেশে-বিদেশে এসব সড়ক দুর্ঘটনায় সংবাদপত্রের শিরোনামে ছিল কটিয়াদী।

২০২০ সালে প্রবাসে সড়কসহ বিভিন্ন দুর্ঘটনায় ৫ জন রেমিটেন্স যোদ্ধা এবং সড়কে বিশিষ্ট দুজন রাজনীতিকসহ ছাত্র-ছাত্রী, শ্রমজীবী, গৃহবধূ, পথচারী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অসংখ্য নর-নারী, শিশু, বৃদ্ধ।

বিগত বছরটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় আলোচিত ব্যক্তিসহ অনেক প্রাণ ঝরেছে যা কটিয়াদীবাসীর জন্য ছিল অত্যন্ত বিষাদময়, বেদনাবিধুর। উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াহাব আইন উদ্দিন, যিনি সড়ক দুর্ঘটনা  প্রতিরোধে ছিলেন সর্বদা সোচ্চার, প্রতিবাদী, সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে ভৈরব-কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কে অসংখ্য মানববন্ধনে বজ্রকণ্ঠে প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন, তিনি গত ২৩ ডিসেম্বর মহাসড়কে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৫ ডিসেম্বর ঢাকা সিএমএইচ হাসপাতালে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

গত ১০ নভেম্বর ফজরের নামাজ আদায় করতে যাওয়ার সময় কটিয়াদী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মহাসড়কে জালালপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি শফিকুল ইসলাম বিল্লাল দুর্ঘটনার শিকার হয়ে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১২ নভেম্বর চলে যান না ফেরার দেশে।

এই দুইজন রাজনীতিকের মৃত্যু কটিয়াদীবাসীকে স্তম্ভিত করেছে।

এছাড়া ২০২০ সালে ভৈরব-কিশোরগঞ্জ মহাসড়ক ও প্রবাসে দুর্ঘটনায় নিহত হন অন্তত ১৫ জন।

বছরের শুরুতে ৫ জানুয়ারি বানিয়াগাঁও বাসস্ট্যান্ডে মসূয়া ইউনিয়নের ওয়াসিম মিয়ার কন্যা ষষ্ঠ শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী শাকিরা খাতুন (১১) সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়।

এছাড়া ১৫ জুলাই আচমিতা এলাকায় ঠেলাগাড়ি চালক আশরাফুল ইসলাম (১৪), ১২ জুলাই ভোগপাড়া নিবাসী পলাশ মিয়ার ছেলে বিজয় মিয়া (৭),  ৩ জুলাই রাস্তা পারাপারের সময় পৌর এলাকার কাহেতেরটেকি মহল্লার হাইছু মিয়া (৬৫), ২৯ জুন বানিয়াগাও বাসস্ট্যান্ডে গনের গাঁও গ্রামের নবী হোসেনের ছেলে ইয়াছিন মিয়া (১১), ২৫ জুলাই আচমিতা এলাকায় সেনা কর্মকর্তা ল্যান্স কর্পোর‌্যাল হাফিজুর রহমানের স্ত্রী জেসমিন আক্তার (২২), ১৮ অক্টোবর চরিয়াকোনা এলাকায় স্মৃতি আক্তার (২৩) ও তার শ্বশুর কুতুব উদ্দিন (৫৫), ২০ নভেম্বর চারিপাড়া এলাকায় রাস্তা পারাপারের সময় লোহাজুরী ঝিরারপাড় গ্রামের কাঞ্চন মিয়া (৬০), ২২ ডিসেম্বর কটিয়াদী বাসস্ট্যান্ড পুলিশ ফাঁড়ির সামনে বনগ্রাম ইউনিয়নের সাইফুল মিয়ার ছেলে অটোচালক রবিন মিয়া সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান।

এদিকে ২৫ জানুয়ারি মালয়েশিয়া প্রবাসী উপজেলার বনগ্রামের নাজমুল হক (২৬),  ১২ জুন মালয়েশিয়া প্রবাসী কামারকোনা মহল্লার মিজানুর রহমান (২২), ২৪ জানুয়ারি সৌদি প্রবাসী মসূয়া ইউনিয়নের নান্টু চন্দ্র বর্মন (২৩), ১৪ জুন সৌদি প্রবাসী করগাঁও ইউনিয়নের ফয়সাল ভূইয়া (৩৩) এবং ৩০ অক্টোবর সৌদি প্রবাসী দক্ষিণ চাতল গ্রামের মো. ইমরান (৪০) এর মৃত্যু সংসারের সুখের স্বপ্নকে ভেঙে চুরমার করে দিয়ে অথৈ সাগরে ভাসিয়ে দিয়ে যায় তাদের স্বজনদের।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর