কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ডিএমপি’র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার হিসেবে যোগদান করেছেন কিশোরগঞ্জের কৃতী সন্তান ইমন


 স্টাফ রিপোর্টার | ১১ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার, ২:১৩ | বিশেষ সংবাদ 


ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) এর অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার হিসেবে যোগদান করেছেন কিশোরগঞ্জের কৃতী সন্তান তানভীর সালেহীন ইমন পিপিএম। রোববার (১০ জানুয়ারি) তিনি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশে যোগদান করেন।

এ সময় তিনি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার অতিরিক্ত আইজিপি মোহা. শফিকুল ইসলাম বিপিএম (বার) এর সান্নিধ্যে সেবার মান সমুন্নত রাখতে এবং শেখার ও জানার পরিধি আরও বিস্তৃত ও সমৃদ্ধ করতে নিরন্তর প্রয়াস অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

তানভীর সালেহীন ইমন পিপিএম এর আগে ২০১৫ সালের ২৯ জুন থেকে ২০২১ সালের ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত দীর্ঘ সাড়ে পাঁচ বছরেরও বেশি সময় কুমিল্লা জেলা পুলিশের কুমিল্লা সদর সার্কেলে সহকারী পুলিশ সুপার এবং পরবর্তিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে সুনাম ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

এই সময়ে সেখানে তিনি একজন মানবিক ও জনবান্ধব পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে পরিচিত লাভ করেন। চৌকস এই পুলিশ কর্মকর্তা কর্তব্যনিষ্ঠা, সততা ও দক্ষতার মাধ্যমে জনগণের সেবকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে সেখানে প্রশংসিত হন।

কর্মদক্ষতার স্বীকৃতি হিসেবে তিনি তিনবার চট্টগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ সার্কেল অফিসারের পুরস্কার পেয়েছেন। এছাড়া রেকর্ড ২৭ বার তিনি কুমিল্লা জেলা পুলিশের সেরা সার্কেল অফিসার হিসেবে পুরস্কৃত হন।

কুমিল্লা সদর সার্কেলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে তানভীর সালেহীন ইমন পিপিএম কুমিল্লা জেলায় ২০১৮ এবং ২০১৯ সালে পরপর দুইবার অফিসার অব দ্যা ইয়ার নির্বাচিত হয়ে এক্সিলেন্স এওয়ার্ড লাভ করেন।

গত ২ ডিসেম্বর তাঁকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ এর অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার হিসেবে পদায়ন করা হয়।

তানভীর সালেহীন ইমন ২৮তম বিসিএস এর মাধ্যমে বাংলাদেশ পুলিশে ২০১০ সালে যোগদান করেন। তিনি ২০১৬ সালে আইজিপি ব্যাজ এবং ২০১৭ সালে রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম) অর্জন করেন।

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। একজন সাবেক জাতীয় বিতার্কিক হিসেবে তার সুখ্যাতি রয়েছে।

কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ থানার মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান ইমন সামাজিক, সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড এবং লেখালেখির সাথে সম্পৃক্ত রয়েছেন।

ইতোমধ্যে "আয়লা ও বিদ্যানগর গণহত্যা" নিয়ে তার একটি গবেষণা গ্রন্থ সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে, গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা কেন্দ্র ১৯৭১: গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর ট্রাস্ট এর উদ্যোগে প্রকাশিত হয়েছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর