কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কাপ্তানবাজারে অগ্নিকাণ্ডে কিশোরগঞ্জের তরুণ নিহত, বাড়িতে মাতম



 কিশোরগঞ্জ নিউজ রিপোর্ট | ৮ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার, ১০:১৫ | বিশেষ সংবাদ 



রাজধানীর কাপ্তানবাজারে অগ্নিকাণ্ডে নিহত মোহাম্মদ ইয়াসিন (২১) এর বাড়ি কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে। সে করিমগঞ্জ উপজেলার গুনধর ইউনিয়নের সুধী গ্রামের দিনমজুর মো. জঙ্গু মিয়ার ছেলে। শনিবার (৮ জানুয়ারি) সকালে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধারের পর বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ইয়াসিনের লাশ সুধী গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়।

এ সময় বাবা-মা, ভাই-বোন, আত্মীয়স্বজনের কান্না আর আহাজারিতে ভারি হয়ে ওঠে এলাকার পরিবেশ। সচ্ছলতার খোঁজে ঢাকা গিয়ে এভাবে লাশ হয়ে ছেলে বাড়ি ফিরবে, তা ভাবতেই পারেননি বাবা জঙ্গু মিয়া।

ছেলের শোকে বার বার মূর্চ্ছা যাচ্ছিলেন মা নাজমা আক্তার। ছোট তিন ভাইবোনের কান্না আর আহাজারি যেন থামছেই না।

স্বজনেরা জানান, ইয়াসিনের পিতা জঙ্গু মিয়া একজন দিনমজুর। দুই ছেলে ও দুই মেয়ের মধ্যে সবার বড় ইয়াসিন ৮/৯ বছর বয়সেই অভাবের তাড়নায় ঢাকামুখী হয়।

ইয়াসিনের মা নাজমা আক্তার বিভিন্ন বাড়িঘরে ছোটখাটো কাজ করেন। এরপরও অভাব যেন পরিবারটির নিত্যসঙ্গী।

সংসারের এমন অবস্থায় কিছুটা বেশি বেতনে মাত্র দুই মাস আগে সে কর্মচারী হিসেবে কাজ নেয় কাপ্তানবাজারের ভূঁইয়া স্টোরে।

সেখানেই শনিবার (৮ জানুয়ারি) ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে ঘটে ভয়াবহ এক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা। অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে যায় অর্ধশতাধিক দোকান।

ফায়ার সার্ভিসের ১২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় দেড় ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনাস্থল থেকেই উদ্ধার করা হয় পুড়ে মারা যাওয়া ইয়াসিনের লাশ।

অগ্নিকাণ্ডে নিহত ইয়াসিনের লাশ বাড়িতে আনার পর গুনধর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু সায়েম রাসেল ইউপি সদস্যদের সাথে নিয়ে তার বাড়িতে যান। সেখানে তিনি পরিবার ও স্বজনদের সান্ত¦না দেয়ার পাশাপাশি পরিবারটিকে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর