কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


মাস্ক ছাড়া ও স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে চলছে বাজারে সমাগম, প্রশাসনের অভিযান


 আফসার হোসেন তূর্জা, ভৈরব | ২৪ মার্চ ২০২১, বুধবার, ১১:৫৫ | ভৈরব 


স্বাস্থ্যবিধি অমান্য, উদাসীনতা ও অসচেতনতার কারণে কিশোরগঞ্জের ভৈরবে করোনা সংক্রমণের হার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ নিয়ে ভৈরবের সাধারণ জনগণের মাঝে আতঙ্ক বাড়লেও নেই কোনো সচেতনতা।

মানুষজন রাস্তাঘাট, হাটবাজারসহ বিভিন্ন জায়গায় মাস্ক ছাড়াই দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। মানছেন না কোনো স্বাস্থ্যবিধি।

এছাড়া বুধবার (২৪ মার্চ) ছিল ভৈরবে সাপ্তাহিক হাট। এই হাট দেশের একটি নামকরা হাট। এই হাটে ভৈরব উপজেলার মানুষ ছাড়াও পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন উপজেলা থেকেও মানুষের সমাগম ঘটে। এতে করে এই এলাকায় করোনা সংক্রমণের হার বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা বেশি।

এদিকে করোনার হার নিয়ন্ত্রণ করতে সরকার সকল প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখলেও মানুষ হাটবাজার সহ বিভিন্ন জায়গায় গাদাগাদি করে চলাফেরা করছে। নেই মাস্ক এর ব্যবহার। স্বাস্থ্যবিধির নেই কোন তোয়াক্কা।

প্রশাসন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচলনা করে জনগণকে জরিমানা করলেও মানুষের বোধোদয় হচ্ছে না। অথচ কিশোরগঞ্জ জেলার মধ্যে ভৈরব উপজেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।

ভৈরবে করোনা নিয়ন্ত্রণ করতে ও মানুষের মাঝে সচেতনতার বৃদ্ধির লক্ষে গত ১৫ মার্চ থেকে ভৈরবে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাঠে নেমে নজরদারি করা হচ্ছে। প্রতিদিনই কোনো না কোনো জায়গায় পরিচালনা করা হচ্ছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। স্বাস্থ্যবিধি অমান্যকারী পথচারিদের করা হচ্ছে জরিমানা। তবু যেন মানুষের মাঝে নেই কোনো সচেতনতা।

বুধবার (২৪ মার্চ) সাপ্তাহিক হাটে বাজারে মানুষকে মাস্ক ও স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে চলাফেরা করতে দেখা গেছে। তবে এদিন ভৈরবের মেঘনা ফেরীঘাট এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।

মাস্ক না পরায় ও স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় ১২ জন ব্যক্তিকে মোট ২ হাজার ৪৫০ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এছাড়া তাদের স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে সচেতন করা হয় ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিমাদ্রী খীসা।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় সহযোগিতা করেন ভৈরব নৌথানা পুলিশ সদস্যরা।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিমাদ্রী খীসা বলেন, প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি জনগণকে মাস্ক পরাতে ও স্বাস্থ্যবিধি মানাতে। করোনা মোকাবিলায় সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক জনগণের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের জনসচেতনতামূলক মোবাইল কোর্ট অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর