কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


খরচ চালাতে অটোচালকের আসনে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র সৌরভ


 মুহাম্মদ শাহ্ আলম, কুলিয়ারচর | ৩ এপ্রিল ২০২১, শনিবার, ৫:৩৯ | কুলিয়ারচর 


সাম্প্রতিক সময়ে সারা দেশে উদ্বেগজনকহারে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু। করোনার এই ভয়াবহ বিস্তার ঠেকাতে ইতোমধ্যে সরকারের তরফ থেকে সারাদেশে এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

করোনা পরিস্থিতির কারণে গত এক বছর ধরে দেশের স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়সহ সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এ অবস্থায় অলস সময় পার করছে শিক্ষার্থীরা।

শনিবার (৩ এপ্রিল) সকাল ১১টার দিকে কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার রাস্তায় দেখা মিলে এক কিশোর অটোচালকের।

কেন এই বয়সে অটোরিকশা চালাচ্ছে? এমন কৌতূহল থেকেই অটোরিকশায় উঠে কথা হয় তার সাথে। ওই কিশোর অটোচালকের নাম সৌরভ। বয়স ১৩ বছর।

সৌরভের পিতার নাম সুজন মিয়া। সুজনের পিতা পেশায় একজন অটোচালক। গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের খিদিরপুর গ্রামে।

সৌরভ চার ভাইয়ের মধ্যে সবার বড়। সে উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়ন আব্দুল হামিদ ভূঞা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র।

তার কাছে প্রশ্ন ছিল, কেন তুমি অটো চালাচ্ছো? সৌরভের সহজ সরল উত্তর, স্কুল বন্ধ, নিজের হাত খরচের জন্য বাবার কাছে না বলে বাবার অটো নিয়ে বেড়িয়ে পড়েছি। মাঝে মধ্যে আমার খরচের জন্য অটো চালাই।

খিদিরপুর চকবাজারে এসে দেখা হয় সৌরভের বাবা সুজন মিয়ার সাথে। এত ছোট ছেলে কেন অটো চালায় জানতে চাইলে তিনি জানান, আমার কাছে না বলে নিজের খরচের জন্য অটো নিয়ে বের হয়েছে।

বুঝাই গেলো, চলমান করোনা পরিস্থিতির প্রভাবে সৌরভের মত স্কুলছাত্র আজ অটোচালক।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর