কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


গ্রীষ্মের ফুল হাজার বেলি


 লেখা ও ছবি: নূর আলম গন্ধী | ১২ এপ্রিল ২০২১, সোমবার, ২:৫৭ | রকমারি 


হাজার বেলি বহুবর্ষজীবী গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ঝোপালো ও গুল্মজাতীয় উদ্ভিদ। বাংলাদেশে হাজার বেলি, সহস্রবেলি নামে পরিচিত। তবে বিশ্বের অন্যান্য দেশে এটি সাধারণত চাইনিজ বোয়ার নামে পরিচিত।

ইংরেজিতে Chinese Glory Bower, Honolulu rose, Glory tree, Stickbush ইত্যাদি নামে পরিচিত। পরিবার Verbenaceae, উদ্ভিদতাত্ত্বিক নাম Clerodendrum fragrans.

আমাদের দেশে বিশেষত রাস্তার ধার, পরিত্যক্ত জায়গা, জলার ধার ও বনের ধারে এ গাছ অনায়াসে জন্মে। তবে এ সকল স্থানে ইদানিং এর দেখা মিলে কম পরিমাণে।

এছাড়া ফুলপ্রেমীর বাগানে চোখে পড়তে পারে। গাছ দ্রুতবর্ধশীল ও বেশ কষ্টসহিষ্ণু। এর গাছ উচ্চতায় গড়ে ৪ থেকে ছয় ৬ ফুট পর্যন্ত হয়ে থাকে।

পাতা আকারে বড় ও ডিম্বাকৃতির। বোঁটা বেশ লম্বা, রং গাঢ় সবুজ, শিরা-উপশিরা স্পষ্ট, কিনারা হালকা খাঁজ কাটা, রসালো ও নরম মানের হয়।

বংশ বিস্তার ঘটে লতার মাধ্যমে। গাছের শাখার অগ্রমাথায় ফুল ফোটে। ফুল ফোটার মৌসুম গ্রীষ্মকাল।

গন্ধ ও গড়নে বেলি ফুলের সঙ্গে মিল থাকায় আমাদের দেশে এটি হাজার বেলি নামে পরিচিতি পেয়েছে।

এ ফুলের একটি থোকায় সাধারণত ৫০ থেকে ৬০ টি পর্যন্ত ফুল ফোটে। ফুল দেখতে প্রায় বেলি ফুলের মতো হলেও হাজার বেলি ফুলের গঠন অনেক বেশি সুগঠিত, দৃষ্টিনন্দন ও নজরকাড়া।

এর প্রতিটি ফুলে তিন থেকে পাঁচ স্তর পাপড়ি থাকে। প্রতিটি ফুল সম্পূর্ণ প্রস্ফুটিত অবস্থায় তিন দিন থাকে।

ফুলের রং সাদা থেকে হালকা গোলাপি আভাযুক্ত। থোকায় ফুলগুলো পর্যায়ক্রমে ফোটে। তাই একটি থোকায় প্রায় মাসখানেক ধরে ফুল ও ফুলের সৌরভ বিদ্যমান থাকে।

ফুলে রয়েছে মিষ্টি সুঘ্রাণ। তাছাড়া সকাল ও সন্ধ্যায় ফুলে ঘ্রাণের তীব্রতা বহুগুণ বেড়ে যায়।

রং আর ঘ্রাণের আকর্ষণে ফুলকে ঘিরে হরেক রকম পতঙ্গের আনাগোনা লক্ষ্য করা যায়।

হালকা ছায়া থেকে রৌদ্রউজ্জ্বল পরিবেশ, উঁচু থেকে মাঝারি উঁচু ভূমি ও প্রায় সব ধরনের মাটিতে হাজার বেলি জন্মে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর